আদালতের কর্মচারীর জামিন না মঞ্জুরে সাময়িক কর্মবিরতি

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ আদালতের এক কর্মচারীর জামিন না মঞ্জুর করে জেলে পাঠানোয় কিছু সময় কর্মবিরতি পালন করেছে অন্যান্য কর্মচারীরা। গতকাল সোমবার ১টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। তবে পরবর্তীতে কর্মচারীরা পুনরায় কাজে যোগদান করেন। জেল হাজতে পাঠানো আসামী নগরীর খালেদাবাদ (রিফুজি) কলোনীর জিন্নাত আলীর ছেলে সুলতান আহম্মেদ।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, সাঁট মুদ্রাক্ষরিক (স্টেনো গ্রাফার) মো. সুলতান তার স্ত্রী কাবেরী বেগমকে নিয়ে একটি মারামারি সংক্রান্ত মামলায় আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিনের আবেদন করেন। এসময় যুগ্ম দায়রা জজ বেগম নুসরাত জাহান কাবেরী বেগমের জামিন মঞ্জুর করলেও তার স্বামী সাঁট মুদ্রাক্ষরিক মো. সুলতানের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।
তাকে জেল হাজতে প্রেরনের খবর শুনে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের কর্মচারীরা হতাশা এবং ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রায় এক ঘন্টা তাদের কর্মবিরতি পালন করেন। পরে অবশ্য কর্মচারীরা পূনরায় কাজে জোগদান করেন।
বরিশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের হাজতখানার দায়িত্বরত এএসআই মো. হারুন জানান, গত ১২ মে কোতয়ালী মডেল থানায় দায়ের হওয়া একটি মামলায় মো. সুলতান, তার স্ত্রী কাবেরী ও ছেলে তৌহিদুল ইসলাম আসামি। ওই মামলায় তারা দু’জন আত্মসমর্পণ করলে তাদের ছেলে পালাতক ছিলো।