আজ থেকে জুয়া-অশ্লীল নৃত্য বন্ধ থাকবে-আইজিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যেসব এলাকায় অবৈধ মানবপাচার বেশী ঘটে, সেসব এলাকায় পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের সমন্বয়ে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছে। তারা অবৈধ মানব পাঁচার রোধে কাজ শুরু করেছে। বিশেষ করে কক্সবাজার থেকে রোহিঙ্গা এবং বাংলাদেশীদের মায়ানমারের সহায়তায় অবৈধভাবে বিদেশে পাঁচার করা হচ্ছে। এসব এলাকায় অবৈধ মানব পাঁচারকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে কক্সবাজারে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে ৩ জন নিহত হয়েছে। অচিরেই অবৈধ মানবপাঁচার রোধ করা সম্ভব হবে বলে আশা করেন আইজিপি একেএম শহীদুল হক। আইজিপি বলেন, শুধু বাংলাদেশের একার পক্ষ থেকে চেস্টা করলে হবেনা। অবৈধ মানব পাঁচার রোধে প্রতিবেশী মায়ানমার, থাইল্যান্ড এবং ভারতের সাথে সু সম্পর্ক রেখে এবং তাদের সহযোগিতা নিয়ে সমন্বিতভাবে মানবপাঁচার রোধে কার্যকরী উদ্যোগ নিতে হবে। এই অঞ্চলে যারা মানব পাঁচারে জড়িত, তাদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এই প্রক্রিয়ায় মানব পাঁচারকারীদের দমন করা সম্ভব হবে বলে আশা করেন তিনি। গতকাল শনিবার সকালে বরিশাল জেলা পুলিশ লাইন্সে পুলিশ কল্যান সমিতির অভ্যন্তরীন মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি। অপর এক প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, জুয়া-অশ্লীল নৃত্য অসামাজিক কাজ, এগুলো বন্ধ থাকবে। কিন্তু হাইকোর্টের কিছু নির্দেশনার কারনে স্থানীয় পুলিশ অনেক সময় জুয়া-অশ্লীল নৃত্য বন্ধ করবে কি করবে না- এনিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্বে থাকে। হাইকোর্টের ওইসব নির্দেশনা যাচাই-বাছাই করে পুলিশকে জুয়া-অশ্লীলতা সহ অসামাজিক কার্যকলাপ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামীকাল (আজ) থেকে এসব আর চলতে পারবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন তিনি। দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলেও দাবী করেন পুলিশ প্রধান। এসময় রেঞ্জ ডিআইজি মো. হুমায়ুন কবির, মেট্রো পুলিশ কমিশনার শৈবাল কান্তি চৌধুরী, জেলা পুলিশ সুপার এসএম আকতারুজ্জামান, মেট্রো পুলিশের উপ-কমিশনার শোয়েব আহম্মাদ, জিল্লুর রহমান ও গোলাম রউফ খানসহ উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পুলিশ কল্যান সমিতির মতবিনিময় এবং উর্ধ্বতন পুলিশ কমকর্তাদের সাথে পৃথক আইন শৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভায় অংশগ্রহন ছাড়াও সন্ধ্যায় পুলিশ লাইন্সে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন তিনি।