অশান্ত নার্সিং কলেজ চলছে আন্দোলন

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ নব নির্মিত এক মাত্র একাডেমিক ভবনটি রক্ষায় লাগাতার আন্দোলন শুরু করেছে বরিশাল নার্সিং কলেজ শিক্ষার্থীরা। রবিবার সন্ধ্যা থেকে রাতভর অবস্থান কর্মসূচী পালনের পাশাপাশি গতকাল সোমবার বিক্ষোভ মিছিল করেছে তারা। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বরিশাল বিএসসি নার্সিং শিক্ষার্থীরা শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল চত্ত্বরে এই বিক্ষোভ মিছিল করেন।
এর আগে গত ১৫ মার্চ রবিবার নগরীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. দিন মোহাম্মদ বরিশালে এসে নার্সিং কলেজ একাডেমিক ভবনে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ ছাত্রীদের আবাসন ব্যবস্থার সিদ্ধান্ত জানান। এতে নার্সিং শিক্ষার্থীরা ক্ষিপ্ত হওয়ার পাশাপাশি নিজেদের একমাত্র একাডেমিক ভবনটি রক্ষায় লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচী পালন শুরু করে। রবিবার সন্ধ্যা থেকে নার্সিং একাডেমিক ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেন।
বরিশাল স্টুডেন্ট নার্সিং ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন’র সহ-সভাপতি সেতু রানী জানান, তারা যে হোস্টেলে থাকেন সেখানে আসন সংখ্যা ১৫০টি। কিন্তু সেখানে আমারা ৪১০ জন ছাত্রী কষ্ট করে বসবাস করে আসছি।
তিনি বলেন, আমাদের আবাসন ব্যবস্থা না করে উল্টো আমাদের একমাত্র একাডেমিক ভবনটি মেডিকেল কলেজ ছাত্রীদের হোস্টেলে রূপান্তর করতে চাচ্ছে। কিন্তু এটা কোন ভাবেই হতে দেয়া যাবে না। একাডেমিক ভবন রক্ষার দাবী পুরন না হওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলেও এই নেত্রী জানিয়েছেন।
নার্সিং কলেজ অধ্যক্ষ আলেয়া পারভিন জানান, মেডিকেল কলেজের পুরাতন ছাত্রী নিবাসের পেছনে নতুন করে একটি হোস্টেল নির্মান কাজ চলছে। এর ফলে পুরানো হোস্টেলে বসবাস ঝুকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এই জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ নার্সিং শিক্ষার্থীদের একাডেমিক ভবনে মেডিকেল কলেজ ছাত্রীদের আবাসন ব্যবস্থা করতে চাচ্ছেন। তাদের পরামর্শ অনুযায়ী স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মহদয় নার্সিং একাডেমিক ভবনটি মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত জানালে এখানকার শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শুরু করে।