অর্থ আত্মসাত মামলায় সরকারী বিএম কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও জিএসের কারাদন্ড

অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় দুদকের দায়ের করা মামলায় সরকারী বিএম কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ নুরুল আনোয়ার ও সাবেক জিএস আবু জাফর বাদলকে কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এ রায় ঘোষণা করেন।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, রায়ে অধ্যক্ষ নুরুল আনোয়ারকে চার বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ৪ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদন্ড এবং জিএস আবু জাফর সিকদার বাদলকে ২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ২ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন। রায় ঘোষনা কালে দন্ডিতরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী (পেশকার) হারুন-অর রশিদ মামলার নথির বরাত দিয়ে জানান, ২০০২ সালে বিএম কলেজের বাকসু ভবনের সংস্কারের নামে ২ লাখ টাকা উত্তোলন করা হয়েছিল। তবে ১২ হাজার টাকার সংস্কারের কাজ করে বাকি ১ লাখ ৭৮ হাজার টাকা ওই সময়ের অধ্যক্ষ নুরুল আনোয়ার ও জিএস আবু জাফর সিকদার বাদল আত্মসাত করেন।
এ ঘটনায় ২০০৯ সালের ৩১ মার্চ দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বরিশাল কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবুল হাসান বাদি হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদক বরিশাল কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ওয়াজেদ গাজী ২০১২ সালের ১২ ডিসেম্বর অধ্যক্ষ নুরুল আনোয়ার ও জিএস আবু জাফর সিকদার বাদলকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ১১ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ৬ জনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় আদালত উল্লেখিত রায় ঘোষণা করেন।