অমৃত লাল দে কলেজ ছাত্রী অপহরণের অভিযোগে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ নগরীর অমৃত লাল দে মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রী অপহরণের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ছাত্রীর মা ৩০নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা রাণী বেগম বাদী হয়ে নামধারী ২জন সহ অজ্ঞাত ৩/৪ জনকে অভিযুক্ত করে এয়ারপোর্ট থানায় মামলা করে। অভিযুক্তরা হলো- সদর উপজেলার সারসি গ্রামের বাসিন্দা আলমগীর হোসেনের ছেলে শিহাব খান ও স্ত্রী শামিমা ইয়াসমিন কোকলা। মামলা সূত্রে জানাগেছে, অপহৃতা লাবনী আক্তার অমৃত লাল মহাবিদ্যালয়ের ২য় বর্ষের ছাত্রী। এক প্রবাসীর সাথে ২ বছর পূর্বে তার বিয়ে হয়। লাবনী তার মায়ের কাছে থেকেই লেখাপড়া করে। কলেজে যাওয়া আসার পথে শিহাব প্রায়ই তাকে উত্যক্ত করত এবং প্রেমের প্রস্তাব দিত। লাবনী এতে অস্বীকৃতি জানালে, শিহাব ক্ষিপ্ত হয়। এর জের ধরে গত ১০ অক্টোবর লাবনী কলেজে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হলে অভিযুক্তরা রেইনট্রি তলা মনসুর ড্রাইভারের বাসার সামনে থেকে মাইক্রোবাসযোগে অপহরণ করে। পরবর্তীতে শিহাবের মা শামিমার কাছে ফোনে জানতে চাইলে তার সম্মতিতেই এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানায়। এর প্রেক্ষিতে থানায় মামলা করা হয়।