অপরিকল্পিত মহাসড়কে বাস উল্টে খাদে, নিহত-১, আহত-২০

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে এক বাস যাত্রী নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে কমপক্ষে ২০জন। শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টায় মহা সড়কের বরিশাল প্রান্তে ছয় মাইল ও সাত মাইল মধ্যবর্তি এলাকায় ইউনিট পেট্রোলপাম্প সংলগ্নে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। আহতদের মধ্যে ১২জনকে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত বাস যাত্রী প্রায় ৫০ বছর বয়সি পুরুষের নাম ঠিকানা জানা যায়নি।
এছাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধিন আহতরা হলো বিমানবন্দর এলাকার ঝুমুর (৩০), বায়জিদ (১১), বরগুনার মাছুম (৫০), পিয়ারী (৬০), বাবুল আকন (৩০), বাদল (২৬), মনির (২৮), কেরানিগঞ্জের ইউনুস সরদার (৪০), বরিশাল নগরীর আরিফ (২৬), বাকেরগঞ্জের শিশু রমজান (১১), ভোলা চরগাছিয়ার আব্দুর রহমান (৫৫) ও পটুয়াখালীর মাহাবুব (২৬)।
এদিকে সড়ক দুর্ঘটনার ফলে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে প্রায় দুই ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিলো। ফলে রাস্তার দুই প্রান্তে অর্ধশত যানবাহনের দীর্ঘ লাইন পড়ে যায়। পরে রেকারের সাহায্যে দুর্ঘটনা কবলিত বাসটিকে সরিয়ে নিলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।
প্রত্যক্ষদর্শী বাস যাত্রী সাথী আক্তার জানান, সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে যাত্রী নিয়ে তালতলি থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় গ্রামিন পরিবহন কোম্পানির (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-০৭২৪) বাসটি। পরিবহনে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা না হলেও ছাদ বাম্পার ও বক্সের মধ্যে অতিরিক্ত পরিমান ইলিশ ও চিংড়ি মাছ বোঝাই ছিলো।
বাস যাত্রী রেশমা বেগম জানায়, চালক শুরু থেকেই বাসটি দ্রুত গতিতে পরিচালনা করছিলেন। পথিমধ্যে ইউনিক ফিলিং স্টেশন সংলগ্নে বাসের চাঁকা রাস্তার পাশে কাচা মাটিতে নেমে যায়। এর ফলে চালক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেললে বাসটি রাস্তার পাশে খাদায় পড়ে যায়।
মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহেদুজ্জামান জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। সেখানে গিয়ে স্থানীয় ও দমকল বাহিনীর সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে পুলিশের গাড়িতে চিকিৎসার জন্য শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।
তিনি জানান, মৃত ব্যক্তির নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে তার পকেটে পাওয়া ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে নাম পরিচয় সনাক্ত করনের চেষ্টা চলছে।