সাইক্লোন শেল্টারে উপকূলের ১২ লাখের বেশি মানুষ | | ajkerparibartan.com সাইক্লোন শেল্টারে উপকূলের ১২ লাখের বেশি মানুষ – ajkerparibartan.com
সাইক্লোন শেল্টারে উপকূলের ১২ লাখের বেশি মানুষ

2:42 pm , November 9, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ এর আঘাত থেকে রক্ষা পেতে আশ্রয়ন কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বরিশাল বিভাগের ৬টি জেলার উপকূলের মানুষদের। এরই মধ্যে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিভাগের ৬ জেলার প্রায় ১২ লাখের বেশি মানুষ সাইক্লোন শেল্টারসহ বিভিন্ন কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে। এছাড়া ২০ লাখের বেশি গবাদী পশু নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এবং বিভাগের ৬টি জেলার জেলা প্রশাসকগণ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে আশ্রয় নেয়া মানুষের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন তারা।জেলা প্রশাসকদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ভোলা ও পটুয়াখালী জেলার সাইক্লোন শেল্টারসহ অন্যান্য আশ্রয় কেন্দ্রে বেশি মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। এর মধ্যে ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিকি জানান, নদী বেষ্টিত ভোলা জেলায় উপকূলিয় এলাকা বেশি। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এ জেলার ৭০৪টি সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছে ৩ লাখ ৩২ হাজার ৬৩৭ জন মানুষ। এছাড়া নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে আসা গবাদী পশুর সংখ্যা এক লাখের কাছাকাছি হবে। অপরদিকে পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানান, ‘বঙ্গোপসাগরের কাছাকাছি জেলা হওয়ায় এখানকার মানুষের মধ্যে ভিতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। ইতিপূর্বে আইলা এবং সিডরেও সর্বোচ্চ ক্ষতি হয়েছে এই অঞ্চলের মানুষের। এ কারনে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ এর আতঙ্কে দুপুর ২টার পর থেকেই উপকূলের মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে আসতে শুরু করে। প্রয়োজনীয় মালামাল, খাদ্য দ্রব্য এবং গবাদী পশু নিয়ে আশ্রয় নেয় সাইক্লোন শেল্টারে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত পটুয়াখালীর মোট ৬৮৯টি সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছে ৪ লাখ ৩৫ হাজারের মত। এছাড়া গবাদী পশু আশ্রয় নিয়েছে ৮৫ হাজার ৩৩৩টি। অপরদিকে বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, ‘বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলা বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে। তবে সব মিলিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ৫১০টি সাইক্লোন শেল্টারে ৭৫ হাজার ৮৭১ জন মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে এর সংখ্যা লাখ ছাড়াবে বলে মনে করছেন তিনি। তাছাড়া এখন পর্যন্ত ৯ হাজার গবাদী পশু-পাখি আশ্রয় দেয়া হয়েছে সাইক্লোন সেল্টারের আশাপাশে। পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন জানান, ‘তাদের ২২৮টি সাইক্লোন শেল্টার রয়েছে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এখানে আশ্রয় নিয়েছে ৬৪ হাজার ৪৬৪ জন। তবে আশ্রয় নেয়া গবাদী পশু-পাখির নির্দিষ্ট সংখ্যা জানাতে পারেননি তিনি। এদিকে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী জানান, ‘তাদের জেলার ৭৪টি সাইক্লোন শেল্টারে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত আশ্রয় নিয়েছে ৭ হাজার ৪৫ জন। আর গবাদী-পশু পাখির সংখ্যা ৮শ’র বেশি। তবে আশ্রয় নেয়াদের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পাবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এছাড়া বরিশাল জেলার ২৩২টি সাইক্লোন শেল্টারে এখন পর্যন্ত আশ্রয় নিয়েছে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ। বরিশালের জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান বলেন, ‘বরিশালে উপকূলীয় এলাকার সংখ্যা কম। নদীর তীরবর্তী এলাকার মানুষদের নিয়ে আসা হচ্ছে সাইক্লোন শেল্টার সেন্টারে। যে কারনে সন্ধ্যা ৭টার পরে আশ্রয় নেয়া মানুষের সংখ্যা লাখ ছাড়াতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। এদিকে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির বরিশাল আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আব্দুর রশীদ জানান, ‘ দেশের উপকূলীয় এলাকার ১৩টি জেলার ৪১টি উপজেলায় সিপিপি’র মোট ৫৫ হাজার ৫১৫ জন স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছে। এর মধ্যে পুরুষ ৩৭ হাজার ১০ জন এবং নারী ১৮ হাজার ৫০৫ জন। তিনি বলেন, ‘আমাদের মোট ৩৫৫টি ইউনিয়নে সিপিপি’র ৩ হাজার ৭০১টি ইউনিট রয়েছে। প্রতিটি টিমের সদস্যরা শুক্রবার থেকেই উপকূলীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড় প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করে আসছেন। বৃদ্ধ, শিশু, গর্ভবতী মায়ের এবং প্রতিবন্ধিদের আশ্রয়ন কেন্দ্রে পৌছে দেয়ার দায়িত্ব পালন করছেন তারা। বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী বলেন, ‘ঘূণিঝড় বুলবুল’ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি। প্রতিটি জেলায় জেলায় জেলা প্রশাসকদের নেতৃত্বে এ বিষয়ে তদারকি করা হচ্ছে। এতে সহযোগিতা করছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও সিপিপি’র সদস্যরা। তিনি বলেন, ‘বরিশাল বিভাগে মোট ২ হাজার ১১৪টি সাইক্লোন শেল্টার রয়েছে। যেখানে ১৭ লাখ ৮৩ হাজার মানুষ আশ্রয় নিতে পারবে। যে অনুযায়ী এখন পর্যন্ত যে সংখ্যক মানুষ আশ্রয় নিয়েছে তার থেকেও বেশি মানুষ আশ্রয় নিতে পারবে সেখানে। যারা আশ্রয় নিয়েছে তাদের জন্য শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT