ধেয়ে আসছে 'বুলবুল' আঘাত হানতে পারে আজ | | ajkerparibartan.com ধেয়ে আসছে ‘বুলবুল’ আঘাত হানতে পারে আজ – ajkerparibartan.com
ধেয়ে আসছে ‘বুলবুল’ আঘাত হানতে পারে আজ

3:04 pm , November 8, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ প্রবল শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসছে ঘূর্নিঝড় ‘বুলবুল’। আজ শনিবার সকাল অথবা দুপুরের দিকে আঘাত হানতে পারে দক্ষিণের উপকূলে। এজন্য পায়রা বন্দরসহ দেশের অন্যান্য সমুদ্র বন্দরকে ৪ নং স্থানীয় হুঁশিয়ারী সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। তাছাড়া বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের অভ্যন্তরীন রুটে বন্ধ রয়েছে ছোট লঞ্চ চলাচল।
এদিকে ঘূর্নিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, ঝালকাঠি, পিরোজপুর এবং ভোলা জেলা প্রশাসন। প্রতিটি জেলায় খোলা হয়েছে জরুরী কন্ট্রোল রুম। পাশাপাশি প্রস্তুত রয়েছে বরিশালের ২৩২ সাইক্লোন সেল্টার ও বরিশাল জোনের ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির (সিপিপি) ৬ হাজার ১৫০ জন স্বেচ্ছাসেবক।
আবহাওয়া বার্তায় জানাগেছে, ‘পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এ কারনে শুক্রবার সকাল থেকেই বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের সকল জেলায় গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হয়েছে। আজ শনিবার দক্ষিণাঞ্চলের উপকূলে আঘাত হানতে পারে ‘বুলবুল’। এজন্য ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় জরুরী সভা করেছে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি। জেলা প্রশাসকের সমম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান। এতে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সংস্থার উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও উন্নয়ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা।
সভায় জেলা প্রশাসক জানান, ‘বরিশাল জেলায় ২৩২টি সাইক্লোন সেল্টার এরই মধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে। প্রয়োজনে বিভিন্ন বিদ্যালয় ভবনও নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হবে। এছাড়া ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী ব্যবস্থাপনার জন্য সিপিপি, রেডক্রিসেন্ট এবং ফায়ার সার্ভিস, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও রোভার স্কাউটসহ অন্যান্য সংস্থাও প্রস্তুত রয়েছে। সেই সাথে সরকারের সংশ্লিষ্ট সকল কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিলের পাশাপাশি ২শত মেট্রিকটন চাল, শুকনো খাবারসহ প্রয়োজনীয় ত্রান সামগ্রী মজুদ রয়েছে।
জেলা প্রশাসক বলেন, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় সার্বিক বিষয়ে খোঁজ রাখছে সরকার। আমরা এরই মধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের সাথে প্রস্তুতি সভা করেছি। ঘূর্ণিঝড়ের সতর্ক বার্তা দেখে সবাইকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করবো। এছাড়া ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় যে কোন বিষয়ে পরামর্শ এবং যোগাযোগের জন্য কন্ট্রল রুম খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের ০১৭৪১১৯৬৯৩৯ ও ০৪৩১৬৩৮৬৩ নম্বরে সংশ্লিষ্ট সকলকে যোগাযোগের জন্য বলা হয়েছে।
এদিকে ‘বুলবুল মোকাবেলায় ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) দুপুরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জরুরী সভা করেছে। সভায় সিপিপি’র আঞ্চলিক উপ-পরিচালক মো. আব্দুর রশীদ জানান, ‘বরিশালে জোনে তাদের ৬ হাজার ১৫০ জন স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছে। পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড় বিষয়ে জনসাধারণকে অবগত করার জন্য ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে পতাকা উত্তোলন এবং মাইকিং এর মাধ্যমে সতর্ক করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, ‘বরিশালসহ দেশের উপকূলীয় এলাকার ১৩টি জেলার ৪১টি উপজেলায় সিপিপি’র মোট ৫৫ হাজার ৫১৫ জন স্বেচ্ছাসেবক রয়েছে। যার মধ্যে পুরুষ ৩৭ হাজার ১০ জন এবং নারী ১৮ হাজার ৫০৫ জন। মোট ৩৫৫টি ইউনিয়নে সিপিপি’র ৩ হাজার ৭০১টি ইউনিট রয়েছে।
বরিশাল আবহাওয়া অফিসের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক আনিসুর রহমান জানান, ‘ঘূর্ণিঝড় বুলবুল তার অবস্থানরত স্থান থেকে ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে ১০০ থেকে ১২০ কিলোমিটার বেগে ওঠা-নামা করছে। তাছাড়া শুক্রবার রাতে ঘূর্ণিঝড়টি স্থলভাগে আসেনি। শনিবার দুপুর নাগাদ দক্ষিণের উপকূলে ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানতে পারে। এ কারনে সকাল থেকেই গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। তবে বেলা ১২টার পরে বৃষ্টিপাতের পরিমান বেড়ে যায়। সে হিসেবে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বরিশালে ৭ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। শুক্রবার বরিশালে সর্বোচ্চ ২৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনি¤œ ২২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড়টি যতো উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে আবহাওয়াও বিরুপ আকার ধারণ করছে। ঘূর্ণিঝড়ের বর্তমান অবস্থায় এটি বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে। তবে দুর্বল হয়ে গেলে তা ভারতের উপকূলে গিয়ে আঘাত হানবে। অবশ্য এটি সাগরে যতো বেশি সময় অবস্থান করবে এর শক্তিও ততোটা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
বরিশাল নদী বন্দর কর্মকর্তা (যুগ্ম পরিচালক) আজমল হুদা মিঠু সরকার জানান, ‘আবহাওয়া বার্তা অনুযায়ী সমুন্দ্র বন্দরে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারী এবং নদী বন্দরে ২ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেয়া হয়েছে। এ কারনে ছোট আকারের সকল নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। আবহাওয়ার পরবর্তী অবস্থান বুঝে ঢাকা-বরিশাল নৌ রুটে লঞ্চ চলাচলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT