বরিশালে পৌছে উষ্ণ সংবর্ধনায় সিক্ত শ্রীলংকা-বাংলাদেশ'র অনুর্ধ্ব-১৯ দল | | ajkerparibartan.com বরিশালে পৌছে উষ্ণ সংবর্ধনায় সিক্ত শ্রীলংকা-বাংলাদেশ’র অনুর্ধ্ব-১৯ দল – ajkerparibartan.com
বরিশালে পৌছে উষ্ণ সংবর্ধনায় সিক্ত শ্রীলংকা-বাংলাদেশ’র অনুর্ধ্ব-১৯ দল

3:04 pm , October 23, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীতে এসে পৌছেছে বাংলাদেশ-শ্রীলংকা অনূর্ধ্ব-১৯ যুব ক্রিকেট দল। গতকাল বুধবার আকাশ পথে পৃথকভাবে দুই দলের খেলোয়াড়রা নগরীতে এসেছেন। এর মধ্যে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা থেকে বিমান যোগে বরিশাল বিমানবন্দরে পৌছায় শ্রীলংকার যুব ক্রিকেট দল। বিমানবন্দরে তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিবি)’র পরিচালক আলমগীর খান আলো। এসময় সেখানে বরিশাল জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার নেতৃবৃন্দ, জেলা প্রশাসন এবং এয়ারপোর্ট থানার উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এরপর বিমানবন্দরের বাইরে শ্রীলংকার ক্রিকেটার, কোচ এবং কর্মকর্তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায় বরিশাল ট্যালেন্ট হ্যান্ড ক্রিকেট একাডেমির ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। পরে পুলিশের কড়া নিরপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে শ্রীলংকার অনূর্ধ্ব-১৯ যুব ক্রিকেট দলকে নগরীর বান্দ রোডস্থ তারকা মানের হোটেল গ্রান্ড পার্কে নিয়ে আসা হয়। এর আগে সকালে বিমানযোগে এসেছে বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯ টিমের খেলোয়াড় এবং কোচ। তাদেরকেও একইভাবে বিমানবন্দরে শুভেচ্ছা জানায় বিসিবি পরিচালক সহ জেলা এবং বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তারা। পরে তাদের পুলিশ প্রটোকলে নগরীর সদর রোডস্থ হোটেল স্যাডোনায় নিয়ে আসা হয়। বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিবি) এর পরিচালক এবং বরিশাল বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সদস্য সচিব আলমগীর খান আলো বলেন, ‘বরিশালে আন্তর্জাতিক মানের স্টেডিয়াম প্রতিষ্ঠার পরে এই প্রথম বারের মত কোন আন্তর্জাতিক পর্যায়ের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তিনি জানান, আগামী ২৬ অক্টোবর বরিশাল স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের চার দিনের এই ম্যাচ শুরু হবে। এ খেলার উদ্বোধন করবেন মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। খেলার তিন দিন আগেই খেলোয়াড়রা বরিশালে এসে পৌছেছেন। প্রথম তাদের থাকার জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হলেও ২৪ অক্টোবর থেকে শ্রীলংকা ও স্বাগতিকরা একই হোটেলে অবস্থান করবেন। তাদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা ওই একই স্থানে। বিসিবি’র এই কর্মকর্তা বলেন, ‘২৬-২৯ অক্টোবর পর্যন্ত ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বাকি দু’দিন অর্থাৎ ২৪ থেকে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত শ্রীলংকা ও বাংলাদেশ যুব টিমের খেলোয়াড়রা প্রস্তুতির জন্য অনূশীলন করবেন। তাই এরই মধ্যে খেলোয়াড়দের নিরাপত্তার স্বার্থে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল
স্টেডিয়াম এলাকায় পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সেখানে পুলিশের পক্ষ থেকে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মো. মোয়াজ্জেম হোসেন ভূঁঞা।
অপরদিকে প্রথমবারের মত বরিশাল স্টেডিয়ামে আয়োজিত আন্তর্জাতিক পর্যায়ের এ ম্যাচকে কেন্দ্র করে ক্রিকেট প্রেমিদের মধ্যে বেশ আনন্দ উদ্দিপনা বিরাজ করছে। যার অংশ হিসেবে বরিশালে আসা বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা যুব ক্রিকেট টিমের খেলোয়াড়দের অভ্যর্থনা জানাতে সড়কের পাশে অবস্থান নেন অনেকে। তাছাড়া দর্শকদের উৎসাহ এবং উদ্দিপনার কথা মাথায় রেখে টেস্ট ম্যাচ উপভোগের জন্য স্টেডিয়ামে প্রবেশে কোন টিকেট এর ব্যবস্থা করা হয়নি।
বিসিবি’র পরিচালক আলমগীর খান আলো বলেন, ‘আন্তর্জাতিক মানের স্টেডিয়াম হলেও এখানকার খেলোয়াড়দের ড্রেসিং রুম আন্তর্জাতিক মানের ছিলো না। তাই স্টেডিয়ামের দুটি ড্রেসিং রুম আন্তর্জাতিক মানের করে সাজানো হয়েছে। বিসিবি’র উদ্যোগে লাগানো হয়েছে ১০টি এসি। ম্যাচ অফিসিয়ালদের জন্য দুটি কক্ষ, তৃতীয় তলায় আম্পায়ার ও স্কোরারদের জন্য একটি কক্ষ প্রস্তুত করা হয়েছে। ব্যবস্থা করা হয়েছে প্রেস বক্সও। ডাইনিংয়ে দেয়া হয়েছে উন্নতমানের ৬০টি চেয়ার।
জানাগেছে, কীর্তনখোলা নদীর তীরে নগরীর চাঁদমারী এলাকায় ১৯৬৬ সালে ২৯ দশমিক ২৫ একর জমিতে বরিশাল স্টেডিয়াম ও আউটার স্টেডিয়াম নির্মিত হয়। ২০০৪Ñ০৬ অর্থ বছরে প্রায় ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে স্টেডিয়ামে ফ্লাড লাইট স্থাপন ছাড়াও নতুন গ্যালারী ও প্যাভেলিয়ান বিল্ডিং সহ আধুনিকায়ন করা হয়। তবে বরিশালে আন্তর্জাতিক মানের কোন আবাসিক হোটেল না থাকার অজুহাতে এতদিন এই স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয়নি। ফলে স্টেডিয়ামটিতে শুধুমাত্র ঘরোয়া ম্যাচই অনুষ্ঠিত হয়ে আসছিলো।
বর্তমানে স্টেডিয়ামে তিনটি আন্তর্জাতিকমানের ক্রিকেট পিচ, ৩০ হাজারের ওপর দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন গ্যালারি, ড্রেসিং রুম ও ম্যাচ অফিশিয়াল রুম, ভিআইপি গ্যালারি, পাঁচতলা প্যাভিলিয়ন, তিনতলা প্রেসবক্স ও ফ্লাড লাইট রয়েছে। তবে স্টেডিয়ামটির ফ্লাড লাইট আদৌ জ¦লেনি। যার পুরোটাই প্রায় অকার্যকর হয়ে আছে।
তবে দীর্ঘ বছর পরে হলেও শ্রীলংকা-বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের মধ্যকার টেস্ট ম্যাচকে ঘিরে বরিশাল স্টেডিয়াম প্রাণ ফিরে পেয়েছে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক মানের এ খেলাটি আগামী দিনে স্থানীয় পর্যায়ের ক্রিকেটারদের অভিজ্ঞতা এবং উৎসাহ বাড়াবে বলে মনে করছেন স্থানীয় ক্রিকেট প্রেমী এবং ক্রিকেটাররা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT