বন্ধুদের মোটরবাইক থেকে ফেলে দেয়া স্কুল ছাত্র ইমন ১২ দিন ধরে সংজ্ঞাহীন | | ajkerparibartan.com বন্ধুদের মোটরবাইক থেকে ফেলে দেয়া স্কুল ছাত্র ইমন ১২ দিন ধরে সংজ্ঞাহীন – ajkerparibartan.com
বন্ধুদের মোটরবাইক থেকে ফেলে দেয়া স্কুল ছাত্র ইমন ১২ দিন ধরে সংজ্ঞাহীন

2:50 pm , October 16, 2019

শাকিল মাহমুদ বাচ্চু, উজিরপুর ॥ বন্ধুদের সাথে মটর বাইকে পুজা মন্ডপে ঘুরতে গিয়ে ১২ দিন ধরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় আই সি ইউ তে চিকিৎসাধীন রয়েছে বাবুগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের ইমাম হোসেন ইমন (১৪) নামক নবম শ্রেণীতে পডুয়া এক স্কুল ছাত্র। বন্ধুরা ওই স্কুল ছাত্রকে চলন্ত মটর বাইক থেকে ফেলে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল। এমন অভিযোগে ৪ জনের নাম উল্লেখ করে ১৩ অক্টোবর বাবুগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে স্কুল ছাত্র ইমন’র পিতা নাসির উদ্দিন বেপারী । পুলিশ সোহেল হাওলাদারকে নামক একজনকে গ্রেফতার করেছে সে বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে। জানাগেছে,বাবুগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের বাসিন্দা কৃষক নাসির উদ্দিন বেপারীর পুত্র জাহপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনী স্কুল ছাত্র ইমাম হোসেন ইমনকে গত ৫ অক্টোরব রাত ৮ টার দিকে পুজা দেখার নাম করে একই গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র নুরুন নবীন মেবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে যায় এসময় তার সাথে নবিনের আরো ৩ সহযোগী ঠাকুর মল্লিক গ্রামের জাহাঙ্গীরের পুত্র হাসান ইসলামপুর গ্রামের আমির হোসেন হাওলাদারের পুত্র সোহেল চরহোগল পাতিয়া গ্রামের ফারুক আকনের পুত্র মুন্না একত্রে বাড়ি থেকে বের হয়। ইমনের বাবা মামলার বাদী নাসির উদ্দিন জানান,ওই দিন রাতে বন্ধুরা বিভিন্ন পুজা মন্ডপে ঘুরে বেডানোর এক পর্যায়ে বন্ধুদের সাথে ইমনের মতপার্থক্য হলে তাকে চলন্ত মটর বাইক থেকে ফলে হত্যার চেষ্ঠা করে নুরুন নবী ,সোহেল,হাসান,ও মুন্না । এক পর্যায়ে আহত স্কুল ছাত্র ইমনকে নুরুন নবীর বাড়িতে একটি ঘরে অটকে রেখে হত্যার জন্য দ্বিতীয় দফায় নির্যাতন করে। পরদিন ৬ অক্টোবর দুপুর দেড়টার দিকে ইমনকে আটক রাখার খবর পেয়ে অচেতন অবস্থায় নবীনদের বাড়ি থেকে উদ¦ার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ( পিজি) প্রেরন করা হয়।বর্তমানে ওই হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ইমাম হোসেন ইমন এখনও শংকামুক্ত নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। বাবুগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানিয়েছেন ,মটরবাইকে করে বন্ধুদের ঘুরতে সাথে যাওয়া ইমনের বাবার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা নিয়েছি একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে তদন্ত সপক্ষে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT