বিএনপি'র সমাবেশে বক্তারা : আবরার হত্যা ও দেশ বিরোধী চুক্তি একই সূত্রে গাথা | | ajkerparibartan.com বিএনপি’র সমাবেশে বক্তারা : আবরার হত্যা ও দেশ বিরোধী চুক্তি একই সূত্রে গাথা – ajkerparibartan.com
বিএনপি’র সমাবেশে বক্তারা : আবরার হত্যা ও দেশ বিরোধী চুক্তি একই সূত্রে গাথা

2:35 pm , October 13, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার বলেছেন, ‘সরকার দেশকে বিকিয়ে দিয়ে ক্ষমতায় থাকতে চায়। ভারতের সাথে দেশ বিরোধী চুক্তির কথা বলতে গিয়ে বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ছাত্রলীগ। গনতন্ত্রতে পদদলিত করে এই সরকার চলছে। যারা আবরারকে হত্যা করেছে সেই ছাত্রলীগের রাজনীতি শুধু বুয়েটে নয় বরং সারা বাংলাদেশ থেকে ছাত্রলীগকে নিষিদ্ধ করে দেওয়া উচিত।
গতকাল রোববার দুপুরে নগরীর সদর রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে দেশ বিরোধী চুক্তি বাতিল, তরুন ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ ও বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে জেলা ও মহানগর বিএনপি আয়োজিত জনসমাবেশে সভাপতির বক্তৃতায় মজিবর রহমান সরোয়ার এসব কথা বলেন।
এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমানে আমরা একটি কারাগারে বসবাস করছি। যেখানে খাই দাই, আর ঘুমাই। এখানে কথা বলারও কোন স্থান নেই। নেই প্রতিবাদের জায়গা। প্রতিবাদ করেছে বলেই আজ মেধাবী ছাত্র আবার খুন হয়েছে। স্বাধীনতার জন্য আবরার শহীদ হয়েছে। আজ যদি দেশে বৈধ সরকার থাকতো, নির্বাচনে সকল দলের অংশগ্রহন থাকত তাহলে আবার হত্যাকান্ড ঘটত না। সরকারের নিজ দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেলেছে।
তিনি আরো বলেন, ‘সরকার দেশের জনগণের সাথে বেঈমানী করে ভারতের সাথে চার চুক্তি করেছে। জনগণের সাথে কোন আলোচনা না করেই তারা গ্যাস আমদানী করে ভারতের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে। এটা দেশের জনগনের সাথে প্রতারনা। এই সরকার ২৯ ডিসেম্বর জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে সরকার গঠন করেছে। তারা রাতের আঁধারে ভোট চুরি করে মসনদ দখল করেছে। জনসভায় আমন্ত্রিত প্রধান অতিথি মেজর (অবঃ) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ সাবেক পানি মন্ত্রী ছিলেন। তিনি এই বিষয়ে সাধারন জনগণকে বিস্তারিত বুঝাতে পারতেন। কিন্তু সরকার তাকে সেই সুযোগ দেয়নি। কোন প্রকার মামলা ছাড়াই বিমান বন্দর থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। এদেশের গনতন্ত্রকে হরন করে সরকার নিজের ইচ্ছামত রাষ্ট্র পরিচালনা করছে। কেউ কথা বলতে পারছেনা।
জনসমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় বিএনপি’র বরিশাল বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট বিলকিছ আক্তার জাহান শিরিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপি সাধারন সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবুল হক নান্নু, বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপি’র সভাপতি মেজবা উদ্দিন ফরহাদ, দক্ষিণ জেলার সভাপতি এবায়েদুল হক চাঁন, সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবুল কালাম শাহিন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আবুল হোসেন খান, মহানগর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক জিয়া উদ্দিন সিকদার, যুগ্ম সম্পাদক আনায়ারুল হক তারিন, উজিরপুর উপজেলা বিএনপি সভাপতি আঃ মন্নান মাস্টার, বাবুগঞ্জ উপজেলা বিএনপি সম্পাদক অহিদুজ্জামান প্রিন্স, মহানগর যুবদল সভাপতি অ্যাডভোকেট আখতারুজ্জামান শামীম, সম্পাদক মাসুদ হাসান মামুন,জেলা যুবদল সভাপতি এ্যাড, পারভেজ আকন বিপ্লব,সম্পাদক এ্যাড, তছলিম উদ্দিন ও বরিশাল মহানগর মহিলাদল নেত্রী শামিমা আকবর প্রমুখ।
জনসভায় বক্তারা বলেন, ভারতের সাথে সম্প্রতি যে চারটি চুক্তি সম্পাদন করা হয়েছে তা দেশ বিরোধী। এখানে ভারতকে সব বিলিয়ে দেয়া হয়েছে। তারা দেশের জনগণের কথা না ভেবে নিজেদের ইচ্ছা মত যা খুশি তাই করে যাচ্ছে।
তারা বলেন, ‘সরকার এখন রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রন করছে বলেই দেশের কোনস্তরে জবাব দিহীতা নেই। আবরার হত্যা ও দেশ বিরোধী চুক্তি একই সূত্রে গাথা। আজ সেই আবরারের পরিবারকে তাঁরা জামায়াত শিবির বলছে। ছাত্রলীগের এমন ন্যক্কার জনক ঘটনা দেশের প্রত্যেকটি মানুষকে কাঁদিয়েছে। শুধু বাংলাদেশই নয় বিশ্বের অনেক দেশ থেকে এর প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।
বক্তারা আরো বলেণ, এই সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মুলক মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। যেখানে খুন, ডাকাতি মামলায় জামিন হচ্ছে সেখানে খারেদা জিয়া কোন দূর্নীতি না করে জেলে বন্দি হয়ে আছেন। তারা বলেন, সরকারে পতন ঘটাতে হলে যেমন ভাবে এরশাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন হয়েছিলো ঠিক সেই ভাবে এই স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাতে হবে।
সরকারের সমালচনা করে বক্তারা বলেন, ‘এই সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মুলক মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। যেখানে খুন, ডাকাতি মামলায় জামিন হচ্ছে সেখানে খারেদা জিয়া কোন দূর্নীতি না করে জেলে বন্দি হয়ে আছেন। তারা বলেন, সরকারে পতন ঘটনাতে হলে যেমন ভাবে এরশাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন হয়েছিলো ঠিক সেই ভাবে এই সৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাতে হবে। সম্প্রতি কেসিনো নিয়ে সরকার নতুন নাটক শুরু করেছে মন্তব্য বলে নেতাকর্মীরা বলেন, যারা প্রকৃত দূর্নীতিবাজ তাদেরকে আড়াল করতে সরকার নতুন এই নাটক সাজিয়েছে।
জনসমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, জাতীয়তবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় সদস্য অ্যাডভোকেট, আলী হায়দার বাবুল, মুক্তিযুদ্ধা নুরুল আলম ফরিদ, মহানগর বিএনপি’র সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম রুনু সরদার প্রমুখ।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT