নামে নামে জমে টানে! | | ajkerparibartan.com নামে নামে জমে টানে! – ajkerparibartan.com
নামে নামে জমে টানে!

3:29 pm , October 8, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ক্যাসিনো পরিচালনার দায়ে গ্রেফতার হওয়া ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের বহিস্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ ভূইয়ার আপন ছোট ভাই মাকসুদুর রহমান মাসুদ। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, তিনি তার ভাইয়ের সকল ব্যবসা বাণিজ্য দেখাশুনা করতেন ও ক্যাসিনোর ক্যাশিয়ার ছিলেন। নামের সাথে মিল থাকায় অনেক মিডিয়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক ও চরফ্যাশনের কৃতি সন্তান মাকসুদুর রহমান মাকসুদকে জড়িয়ে সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে। বিষয়টির ব্যাখ্যা দিয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক মাকসুদুর রহমান মাকসুদ বলেন, আমি কোন ধরণের ক্যাসিনো ব্যবসার সাথে জড়িত নই। নামের সাথে মিল থাকায় কিছু মিডয়াকর্মি আমাকে জড়িয়ে ভুল তথ্য পরিবেশন করেছেন। তিনি তার রাজনৈতিক পরিচয় তুলে ধরে বলেন, ১৯৯৩ সালে ক্লাস নাইনে পড়ার সময় থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলাম। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে ঢাকার রাজপথে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত সতের বছর। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরে নেতৃত্ব দিয়েছি। ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে বিদায় নিয়ে যুবলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত আট বছর। বর্তমানে ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণ এর সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করছি। দীর্ঘ রাজনীতির জীবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করে সংগঠনের জন্য কাজ করে যাচ্ছি।
তিনি বলেন, আমার পিতা ছিলেন ১৯৬২ সাল থেকে আওয়ামী লীগের নেতা। আমিনাবাদ ইউনিয়ন বোর্ড আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিন সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ছিলেন রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা, আদর্শবান স্কুল শিক্ষক। তিনি ১৯৯৫ সালে ইন্তেকাল করেছেন। পিতার আদর্শে বড় হয়েছি। কখনো কোন অন্যায় করিনি, অন্যায় কে প্রশ্রয় দেইনি। আমরা যারা ওেনত্রীর রাজপথের কর্মী, আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে রাজপথ থেকে সরাতে পারবে না।
গত কিছুদিন কয়েকটি জাতীয় পত্রিকায়, অনলাইন পত্রিকায় ও মিডিয়ায় খুবই বাজে, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন নিউজ হয়েছে আমার সাংগঠনিক পোস্ট উল্লেখ্য করে। নামে নামে জমে টানার মতো অবস্থা। সকলের কাছে অনুরোধ আমি পত্রিকার মাকসুদুর রহমান না। বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র কারীরা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার রাজপথের তৃণমূলের পরীক্ষিত সৈনিকদের নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে।
গত কয়েকদিন জাতীয় পত্রিকায় সেলিম প্রধান, জিকে শামীম ও খালিদের সহযোগী বানিয়ে আমার বিরুদ্ধে বানোয়াট ও বিভ্রান্তিকর সংবাদপরিবেশন হয়েছে। এদের কারো সাথে আমার কোন প্রকার যোগাযোগ কিংবা সম্পৃক্ততা নেই। মুলত খালিদের আপন ছোট ভাই মাকসুদুর রহমান মাসুদ এগুলোর সাথে সম্পৃক্ত।
২০০১ সালের পর বহুবার রাজপথে আন্দোলন করতে গিয়ে কারাবরন করেছি। বহুবার গুরুতর আহত হয়েছি, নেত্রী ২০০৪ সালে আওয়ামী লীগের ডাকে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল সফল করতে গিয়ে গুরুতর আহত হই। ১৩ ফেব্রুয়ারি জননেত্রী শেখ হাসিনা হাসপাতালে দেখতে এসে আমার খোজ খবর নিয়েছেন। ২০০৭ সালের ১/১১ সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় প্রিয় নেত্রীর মুক্তির আন্দোলন করতে গিয়ে রাস্ট্রদ্রোহ মামলার আসামী ছিলাম, রাজপথ থেকে সরিনি। যৌথ বাহিনী বহুবার চেষ্টা করেছে গ্রেফতার করতে। কিন্তু স্থির ছিলাম নেত্রীর মুক্তি ছাড়া রাজপথ ছাড়বো না।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT