কলাপাড়ায় গৃহবধূ গণধর্ষন মামলার বাদী স্বামীর হাত ও পা ভেঙ্গেছে আসামিরা | | ajkerparibartan.com কলাপাড়ায় গৃহবধূ গণধর্ষন মামলার বাদী স্বামীর হাত ও পা ভেঙ্গেছে আসামিরা – ajkerparibartan.com
কলাপাড়ায় গৃহবধূ গণধর্ষন মামলার বাদী স্বামীর হাত ও পা ভেঙ্গেছে আসামিরা

3:12 pm , September 18, 2019

কুয়াকাটা প্রতিবেদক ॥ গণধর্ষণ মামলার বাদি ও ধর্ষিতার স্বামীকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিয়েছে মামলার আসামি শাকিল মৃধাসহ এজাহারভুক্ত অন্যান্য আসামিরা। গুরুত্বর অবস্থায় বুধবার সকালে আহত সিদ্দিক হাওলাদারকে (৩৫) বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরআগে মঙ্গলবার দিবাগত রাত নয়টার দিকে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের চাপলী বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মহিপুর থানা পুলিশ বুধবার দুপুরের দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে খায়ের (৪২) নামের এক জনকে গ্রেফতার করেছে।
আহত সিদ্দিক হাওলাদার পশ্চিম লতাচাপলি গ্রামের বাসিন্দা ও তার স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলার বাদি। আহতের স্বজনরা জানান, কলাপাড়ার ধুলাসার বাজারের ইউনিয়ন পরিষদের সামনের একটি চায়ের দোকানে সিদ্দিক হাওলাদার দাঁড়িয়েছিলো। এসময় তার স্ত্রীকে গণধর্ষনের ঘটনায় দায়ের করা মামলার আসামি শাকিল মৃধার নেতৃত্বে শাহ আলম, আল-আমিন, রবিউলসহ ৮/১০ জন সন্ত্রাসীরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে লোহার রড দিয়ে এলোপাথারীভাবে পিটিয়ে সিদ্দিকের এক হাত ও দুই পা ভেঙ্গে দিয়েছে। পরে স্থানীয় রুবেল নামের এক দোকানি মোটরসাইকেল ভাড়া করে সিদ্দিককে বাড়ি পৌঁছে দেয়। আহত সিদ্দিকের চাচাতো ভাই কবির হোসেন জানান, হামলার পর গুরুত্বর আহত সিদ্দিককে কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে হামলাকারীদের বাঁধার মুখে তারা চিকিৎসা করাতে পারেননি। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে আমতলী এসে প্রাথমিকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত দুই পা ব্যান্ডেস করে রক্তক্ষরন বন্ধ করার পর তাকে (সিদ্দিক) বুধবার সকালে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
মহিপুর থানার ওসি মোঃ সোহেল আহম্মেদ জানান, শাকিলসহ অন্যান্য আসামিরা কয়েকদিন আগে কারাগার থেকে বের হয়ে এ হামলা চালিয়েছে বলে শুনেছি। এ ঘটনায় এখনও কেউ থানায় অভিযোগ করেননি। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
উল্লেখ্য, গত ১৫ এপ্রিল রাতে ধুলাসার ইউনিয়নের পশ্চিম চাপলী গ্রামে মহিপুর থানা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শাকিল মৃধার নেতৃত্বে তার সহযোগি শাহ আলম, শাহিন, রবিউল, আল-আমিন, আব্দুর রশিদসহ অজ্ঞাতনারা ৭/৮জন যুবক সিদ্দিক হাওলাদারকে অস্ত্রের মুখে বেঁধে রেখে তার স্ত্রীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় স্বামী সিদ্দিক হাওলাদার বাদি হয়ে পটুয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT