নগরী থেকে তিন দুধর্ষ সন্ত্রাসী আটক | | ajkerparibartan.com নগরী থেকে তিন দুধর্ষ সন্ত্রাসী আটক – ajkerparibartan.com
নগরী থেকে তিন দুধর্ষ সন্ত্রাসী আটক

6:04 pm , September 16, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সন্ত্রাসী এবং অপরাধমুলক কর্মকান্ডের প্রস্তুতি কালে দুধর্ষ তিন ছিনতাইকারী ও সন্ত্রাসীকে আটক করেছে র‌্যাব-৮। এ সময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৫টি ধারালো অস্ত্র এবং ৯৯ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট। আটককৃতদের মধ্যে একজন মাসুদ ইসলাম নগরীর চিহ্নিত ছিনতাইকারী ও ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানা সহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

আটককৃত অপর দুই ছিনতাইকারী হলো কোতয়ালী থানাধিন মহন্দকাঠী এলাকার বাসিন্দা মো. জুয়েল হোসেন এর ছেলে মো. রিমন হাওলাদার ও অপরজন ২৩নং ওয়ার্ডের কাজীপাড়া শহিদ কমিশনারের বাড়ির মো. সেলিম রাঢ়ীর ছেলে মো. মিঠুন রাঢ়ী (১৯)। তার গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর ধুলিয়া গ্রামে।

র‌্যাব জানিয়েছে, ছিনতাইর পূর্ব প্রস্তুতি কালে ২০নং ওয়ার্ডের কলেজ এভিনিউ জোড়া পুকুর সংলগ্ন এলাকা থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই তিনজনকে ধারালো অস্ত্র ও ইয়াবা সহ আটক করা হয়। তবে ওই তিনজনের বিরুদ্ধে কিলিং মিশন পরিকল্পনার অভিযোগ করেছেন সদ্য ঘোষিত মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির। ছাত্রদলের পদবঞ্চিত বিএম কলেজ এলাকার সোহেল নামের যুবক তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মাসুদকে অর্থের বিনিময়ে ভাড়া করে আনা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। তবে হুমায়ুন কবিরের এমন অভিযোগের কোন সত্যতা নেই বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৮ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো: হাসান আলী।

তিনি জানিয়েছেন, ওই তিন মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারী সন্ধ্যার পর পরই ধারালো অস্ত্র নিয়ে ছিনতাই করে। পাশাপাশি তারা মাদকের ব্যবসাও করতো। এর ধারাবাহিকতায় গতকাল রোববার কলেজ এভিনিউ এলাকায় ধারালো অস্ত্র নিয়ে ছিনতাই’র পরিকল্পনা করছিলো। সেই মুহুর্তে স্থানীয়রা তাদের ধরে র‌্যাবকে খবর দেয়। তারা ঘটনাস্থলে পৌছে ওই তিন মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারীকে আটক করে। পরে তাদের কাছ থেকে ৯৯ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ১টি চাপাতি ও দা এবং ছোড়া সহ ৫টি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে। এই ঘটনায় র‌্যাব-৮ এর ডিএডি মো. মামুনুর রশিদ খান বাদী হয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় অস্ত্র ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মায়ের করেছেন।

এদিকে মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির অভিযোগ করেন, আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসী মাসুদ ইসলামকে ভাড়া করা হয়েছিলো। আমি বৈদ্যপাড়া এলাকায় থাকি। সে জন্য সেখানে হত্যার পরিকল্পনা কালে স্থানীয়রা ওই তিনজনকে আটক করেছে।

হুমায়ুন কবির আরো বলেন, বিএম কলেজ এলাকার সোহেল ওরফে ছাগল সোহেল নামের যুবক ওই তিনজন কিলারকে ভাড়া করেছিলো। মহানগর ছাত্রদলে পদ না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে ওরা আমাকে হত্যার পরিকল্পনা করে। আটক হওয়ার পরে স্থানীয় ও র‌্যাবের উপস্থিতি ওই তিন সন্ত্রাসী এমন কথাই স্বীকার করেছে বলে দাবী হুমায়নের। তবে র‌্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক হাসান আলী বলেছেন, এ ধরনের কোন তথ্য ওই তিন মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারী আমাদের দেয়নি। কেউ বলে থাকলে সেটা সঠিক নয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT