এক মঞ্চে ১৫ আগস্টের প্রত্যক্ষদর্শীদের স্মৃতিচারণ | | ajkerparibartan.com এক মঞ্চে ১৫ আগস্টের প্রত্যক্ষদর্শীদের স্মৃতিচারণ – ajkerparibartan.com
এক মঞ্চে ১৫ আগস্টের প্রত্যক্ষদর্শীদের স্মৃতিচারণ

3:22 pm , August 31, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট। বাঙালী জাতির জীবনের একটি কাল রাত। ওই রাতে বাঙালী জাতি হারিয়েছেন তাদের স্বাধীনতা স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের সাথে সাথে হত্যা করেছে দক্ষিনাঞ্চল আওয়ামী লীগের অভিভাবক পার্বত্য শান্তিচুক্তি বাস্তায়ন পরিবিক্ষন কমিটির মন্ত্রী পদমর্যাদায় আহ্বায়ক আলহাজ¦ আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ-এমপির বাবা শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাতসহ বড় সন্তান সুকান্ত বাবুকে। ওই কাল রাতের শহীদ পরিবার ও নির্যাতিতদের নিয়ে এই নগরীতে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘শোকাবহ আগস্ট স্মরণে দোয়া ও স্মৃতিচারণমূলক অনুষ্ঠান। ঘটনার দীর্ঘ ৪৪ বছর পর বরিশাল জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠান হয়েছে। আর এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নগরবাসী এক মঞ্চে দেখতে পেয়েছেন ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীদের। তাদের কাছ থেকে শুনেছেন কাল রাতে ভয়াবহ রোমহর্ষক হৃদয় বিদ্রাক ঘটনার কথা। নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে বেলা ১১টা থেকে শুরু হওয়া এ অনুষ্ঠান হয়েছে বেলা তিনটা পর্যন্ত। দীর্ঘ সময় ধরে হাজারো মানুষ শুনেছেন নির্মম সেই ঘটনা। অনুষ্ঠান শুরু হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, সহ সকল শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামানায় দোয়া-মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে। এরপর ঘটনার বর্ননা দিয়েছেন প্রধান অতিথি নিরব সাক্ষী শহীদ শিশু সুকান্ত বাবু আবদুল্লাহ’র পিতা আলহাজ¦ আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ-এমপিও। এছাড়া প্রধান আলোচক ছিলেন, সেই রাতের ঘাতকদের নিক্ষিপ্ত বুলেটে বিদ্ধ শহীদ জননী ও আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ’র সহধর্মীনি শাহানারা বেগম এবং মুখ্য আলোচক ছিলেন শহীদ সুকান্ত বাবু’র ছোট ভাই বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ।
এছাড়াও ব্যতিক্রমধর্মী এই স্মৃতিচারণ ও আলোচনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল অব. জাহিদ ফারুক শামীম, বরিশাল-৩ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দা রুবিনা আক্তার মিরা, বরিশাল-৬ আসনের সংসদ সদস্য ইসরাত জাহান রতœা, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী, বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম, পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান প্রমুখ।
বরিশাল জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ১৫ই আগস্ট এর স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি এ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর।
এছাড়াও ১৫ই আগস্ট এর স্মৃতিচারণ করেন সেদিনের প্রত্যক্ষদর্শী ঘাতকদের বুলেটে আঘাতে মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে আসা ডা. জিল্লুর রহমান, প্রত্যক্ষদর্শী মহিউদ্দিন মানিক-বীর প্রতীক প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে ১৫ই আগস্টের নির্মম ও হৃদয় বিদারক ঘটনা চিত্র তুলে ধরেন বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে বউ মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং শহীদ জননী শাহানারা বেগম। ১৫ই আগস্টের সেই রোমহর্ষক বর্ননা দিতে গিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেলেন তিনি।
একইভাবে ১৫ই আগস্ট কাল রাতের বর্ণনা দিতে দিয়ে কেঁদে ফেলেন সেই রাতে বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে উপস্থিত থাকা ক্রিসেন্ট ব্যান্ড গ্রুপের অন্যতম সদস্য ডা. জিল্লুর রহমান ও মুক্তিযোদ্ধা কেবিএস মহিউদ্দিন মানিক-বীর প্রতীক।
এদিকে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে বরিশাল বঙ্গবন্ধু উদ্যানের মানুষের ঠল নামে। বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, মুক্তিযোদ্ধা, সাংস্কৃতিক অঙ্গনের ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন দলীয় নেতা-কর্মী, বরিশাল জেলার বিভিন্ন উপজেলা’র চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। প্রখর রোডের খড়তাপ উপেক্ষা করে তারা ১৫ই আগস্ট এর স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান উপভোগ এবং ১৫ই আগস্ট এর ভয়াবহ সেই ঘটনার বর্ননা শোনেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT