ঝালকাঠিতে মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ | | ajkerparibartan.com ঝালকাঠিতে মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ – ajkerparibartan.com
ঝালকাঠিতে মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ

2:59 pm , August 18, 2019

ঝালকাঠি প্রতিবেদক ॥ ঝালকাঠিতে মাদ্রাসার এক অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে নিজ প্রতিষ্ঠানের ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। সদর উপজেলার তেরআনা শাহমাহমুদিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার অভিযুক্ত অধক্ষ্য এসএম কামাল হোসাইন এ ঘটনার পর পালিয়ে যান। মামলার নথিরপত্রের উধৃতি দিয়ে ঝালকাঠি সদর থানার ওসি শোনিত কুমার গায়েন বলেন, ওই ছাত্রী লেখাপড়ার পাশাপাশি অধ্যক্ষ কামাল হোসাইনের বাসায় ৫ বছর ধরে গৃহপরিচালিকার কাজ করতো। গত শনিবার (১৭ আগস্ট) রাতে খবর পেয়ে পুলিশ অধ্যক্ষ কামালের মেঝ ভাইয়ের বাড়ি থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে তাদের হেফাজতে নিয়ে আসে। ঘটনার পর থেকে অধ্যক্ষ কামাল হোসাইন পলাতক রয়েছেন। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ওসি আরও জানান, গত ১৫ আগস্ট দুপুরে কামাল হোসাইনের বাড়িতে ওই ছাত্রী সর্বশেষ ধর্ষণের শিকার হয়। এ ঘটনাটি জানাজানি হলে আত্মগোপন করেন অধ্যক্ষ কামাল। পরে ছাত্রীটিকে কামালের মেঝ ভাই জামাল উদ্দিনের বাড়িতে আটকে রাখা হয়। আর সেখান থেকেই পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার লোকজন জানায়, চরম দরিদ্র পরিবারের মেয়েটিকে বাসায় কাজে রেখে দীর্ঘদিন থেকে অধ্যক্ষ কামাল হোসাইন শারীরিক সর্ম্পক করে আসছিলেন। ১৫ আগস্ট দুপুরে এ ঘটনা অধ্যক্ষের স্ত্রী দেখে ফেললে বিষয়টি জানাজানি হয়। এ ঘটনায় রোববার দুপুরে সদর থানায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে অধ্যক্ষ কামাল হোসেনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত অধ্যক্ষ পালিয়ে গেলেও তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলেও জানান ওসি শোনিত কুমার গায়েন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT