ই-ট্রাফিক যুগে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বিএমপি'র ট্রাফিক বিভাগ | | ajkerparibartan.com ই-ট্রাফিক যুগে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগ – ajkerparibartan.com
ই-ট্রাফিক যুগে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগ

3:36 pm , August 1, 2019

খান রুবেল ॥ ডিজিটাল হয়েছে মহানগর ট্রাফিক পুলিশ বিভাগ। তারা ভোগান্তি দূর করতে যানবাহনে মামলা ও ফি জমা সংক্রান্ত ম্যানুয়াল পদ্ধতি বাতিল করে ই-ট্রাফিক যুগে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিষ্টেম অথবা ইটিপিএফএস চালু করবে নগর ট্রাফিক বিভাগ। অনেকটা দেরীতে হলেও বর্তমান পুলিশ কমিশনার ও উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) এর প্রচেষ্টায় আগামী ৫ আগস্ট এ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে।
ওইদিন মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাব উদ্দীন খান (বিপিএম-বার) এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। এমনকি ওইদিন থেকেই এনালগ পদ্ধতি বাতিল করে ডিজিটাল পদ্ধতিতে আইটিসিএল এর পিওএস (পজ) মেশিনের মাধ্যমে ত্রুটিযুক্ত যে কোন যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা কার্যক্রম শুরু করবে। এর ফলে যানবাহন মালিক বা চালকদের আর ছুটতে হবে না ব্যাংক বা ট্রাফিক পুলিশ কার্যালয়ে। রোদ-বৃষ্টিতে ভিজে থাকতে হবে না দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে। যে কোন সময়, যে কোন স্থান থেকে, যে কোন মুহুর্তে ইউ ক্যাশের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে ট্রাফিক ফাইন বা জরিমানার টাকা। এমনকি পরিশোধিত টাকার রিসিভ কপি ডাক যোগে পৌছে যাবে গ্রাহকের বাড়িতে।
এমনটিই জানিয়েছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের (বিএমপি) ট্রাফিক বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার খাইরুল আলম। তাছাড়া এই কার্যক্রমের মাধ্যমে ট্রাফিক বিভাগে মামলার স্বচ্ছতাও বাড়বে বলে মনে করছেন ওই কর্মকর্তা।
তিনি বলেন, ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিষ্টেম সরকারের চলমান ডিজিটালাইজেশনের একটি অংশ। যা পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী বিএমপিতে চালু হচ্ছে। এজন্য ইউসিবি ব্যাংক এর সাথে বিএমপি’র চুক্তি হয়েছে।
যানবাহনে মামলা সংক্রান্ত জরিমানা বা ফি পরিশোধের জন্য তারা বিএমপি’র চারটি থানা এলাকায় ৪৩টি ইউ ক্যাশ পয়েন্ট চালু রাখতে সম্মতি জানিয়েছে। যা ২৪ ঘন্টা খোলা থাকবে। তবে এ কার্যক্রম ফলপ্রসূ হলে চাহিদা অনুযায়ী ইউ ক্যাশ পয়েন্ট আরো বৃদ্ধি করা হবে। তাছাড়া এ কার্যক্রমের অনলাইন সেবায় সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে থাকছে গ্রামীন ফোন ও বাংলা লিংক মোবাইল সিমি অপারেটর কোম্পানী।
উপ-পুলিশ কমিশনার খাইরুল আলম বলেন, যানবাহন ও চালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরে স্বচ্ছতা, ডিজিটালাইজেশন ও নাগরিকদের সময় বাঁচানোর জন্য প্রাথমিকভাবে আইটিসিএল-এর ৩৫টি পিওএস (পজ) মেশিন নিয়ে ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিষ্টেম চালু করা হবে। এ লক্ষ্যে ট্রাফিকের ডিসি, ট্রাফিকের এসি, ৪ জন টিআই, ১৮ জন সার্জেন্ট, ৭ জন টিএসআই ও ১ জন এটিএসআইদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।
আগামী ৫ আগস্ট সকালে এক দিনের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শেষে নগরীর জিলা স্কুলের মোড়ে পুলিশ কমিশনার ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিষ্টেম বা ইটিপিএফএস কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) খাইরুল আলম।
জানাগেছে, ২০১৪ সালের ২৯ জানুয়ারি দেশে প্রথমবারের মত ডিএমপিতে যাত্রা শুরু করেছিলো ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিষ্টেম। শুরুতে পজ মেশিনে ডিজিটাল ও ম্যানুয়াল উভয় পদ্ধতিতে মামলা দায়ের করা হতো। তবে ২০১৫ সালের পয়লা জানুয়ারি থেকে সম্পূর্ণভাবে পজ মেশিনে মামলা দায়ের করা হয়।
এর পর পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন মেট্রোপলিটন এলাকায় এই কার্যক্রম চালু হলেও পিছিয়ে ছিলো বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। সর্বশেষ বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাব উদ্দীন খান ও উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) খাইরুল আলম এর প্রচেষ্টায় বরিশালেও ই-ট্রাফিক প্রসিকিউশন এন্ড ফাইন পেমেন্ট সিষ্টেম চালু হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT