আবাসিক হোটেলে মেহেন্দিগঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম | | ajkerparibartan.com আবাসিক হোটেলে মেহেন্দিগঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম – ajkerparibartan.com
আবাসিক হোটেলে মেহেন্দিগঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম

5:52 pm , July 18, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর সদর রোড এলাকায় ফিল্মি স্টাইলে হোটেলের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে এক ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে আবাসিক হোটেল আলী ইন্টারন্যাশনাল এর তৃতীয় তলায় এই ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত মেহেন্দীগঞ্জের তলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান নেহালকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সদর রোডের হোটেল আলী ইন্টারন্যাশনালের ম্যানেজার এম শাকিল বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান নেহাল আমাদের পুরানো বোর্ডার। গত ১৬ জুলাই রাতে তিনি হোটেলের ৩০৩ নম্বর রুমটি ভাড়া নেন। তিনি ছাড়াও আরো দুটি রুম ভাড়া নেয় তার লোকেরা। ১৭ জুলাই রাতেও হোটেল আলী’র ওই কক্ষটি তার নামেই বুকিং ছিলো।

সিসি টিভির ফুটেজ ও রাতে দায়িত্বরত কর্মচারীদের বরাত দিয়ে শাকিল বলেন, ১৭ জুলাই রাতে বুকিং কাউন্টারের পাশেই ৩০৩ নম্বর কক্ষে অবস্থান করছিলেন চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান নেহাল। রাত ১২টা ২৭ মিনিটে চার যুবক নিজেদের ভাতিজা পরিচয় দিয়ে মিজানুর রহমান নেহাল এর সাথে দেখা করতে উপরে ওঠে। এর কিছুক্ষন পরেই ইউপি চেয়ারম্যান নেহাল’র ডাক-চিৎকার শুনে হোটেলের কর্মচারী এবং অন্যান্য বোর্ডার ছুটে আসে। ততক্ষনে হোটেল ত্যাগ করে ওই চার যুবক।

ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান নেহাল বলেন, রাতে ওই চার যুবক এসে তার রুমের দরজা নক করে। দরজা খুলতেই তারা আমার উপর অতর্কিত ভাবে হামলা এবং কুপিয়ে জখম করে। তবে তাদের কাউকেই তিনি চিনতে পারেননি বলে দাবী করেছেন।

হোটেলের ম্যানেজার শাকিল বলেন, সামনে নির্বাচন। এজন্য নতুন-পুরাতন অনেক বোর্ডার রাতেও হোটেল বুকিং দিতে আসেন। যারা বুকিং নেন তাদের বাইরে আসা যাওয়া করতে হয়। তাদের কাছে দলীয় লোকজন আসে। এজন্য হোটেলের নিচের এবং উপরের দু’টি গেটই কিছুটা খোলা রাখা হয়। মঙ্গলবার রাতেও একই ঘটনা ঘটে।

হোটেলের নিচে থাকা আইএফআইসি ব্যাংকের নৈশ প্রহরী আনোয়ার হোসেন বলেন, হোটেলের নিচ তলায় প্রধান গেটটি খোলা ছিলো। চারজন যুবক এসে বলে উপরে তাদের কাকার সাথে দেখা করতে যাচ্ছেন। এর কিছুক্ষন পরেই দেখি ওই চারজন তারাহুরো করে হোটেল থেকে বেরিয়ে দুটি মোটর সাইকেল নিয়ে চলে যায়।

এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী কোতয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরাফাত রহমান হাসান বলেন, এই ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ হয়েছে। ওই অভিযোগটিই রাতে এজাহার হিসেবে গ্রহন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে হোলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন এবং রাতে দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাছাড়া হোটেলের সিসি টিভি’র ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। ওই ফুটেজে চার যুবককে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত বলে প্রমান পাওয়া যায়। তাদের চেহারাও স্পষ্ট ভাবে দেখা গেছে। খুব শিঘ্রই অপরাধিদের গ্রেপ্তার এবং ঘটনার কারন বেরিয়ে আসবে বলে আশাবাদী পুলিশেল ওই কর্মকর্তা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT