হেলথ টেকনোলজির আবাসিক ছাত্রী লাপাত্তা | | ajkerparibartan.com হেলথ টেকনোলজির আবাসিক ছাত্রী লাপাত্তা – ajkerparibartan.com
হেলথ টেকনোলজির আবাসিক ছাত্রী লাপাত্তা

3:31 pm , June 30, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজী (আইএইচটি) ছাত্রী হলের নিরাপত্তার সংকট দেখা দিয়েছে। হোস্টেলের নিয়ম না মেনেই ছাত্রীরা যে যার মত প্রবেশ এবং বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী নিজের বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে তার প্রেমিকের সাথে লাপাত্তা হয়েছে। এ নিয়ে ক্যাম্পাস জুড়ে বেশ তোলপাড় সৃষ্টি হলেও বিষয়টি জানা নেই হোস্টেল সুপার বা আইএইচটি কর্তৃপক্ষের। অভিযোগ উঠেছে ইনস্টিটিউট প্রশাসনের উদাসীনতার কারনে এমন পরিস্থিতি বিরাজ করছে।
ক্যাম্পাস সূত্রে জানাগেছে, আইএইচটি’র রেডিওলজী অনুষদের প্রথম বর্ষের ছাত্রী মুক্তি শনিবার ভোরে হল থেকে বেরিয়ে যায়। সে ক্যাম্পাসে ফিরে আসে সন্ধ্যার দিকে। এ নিয়ে ক্যাম্পাসে ছাত্রী হলে হইচই পড়ে যায়।
সূত্র জানায়, ডেন্টাল অনুষদের ছাত্র কথিত ছাত্রীলীগ নেতা আফাস এর সাথে প্রেম প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে ছাত্রী মুক্তির। শনিবার ভোরে ওই ছাত্রী বাগেরহাটে তার বাড়িতে যাওয়ার কথা জানিয়ে হল থেকে বের হয়। কিন্তু বাড়ি না গিয়ে আফাস এর সাথে উধাও হয়ে যায় সে। যদিও অভিযোগ উঠেছে আফাস ওই ছাত্রীকে ক্যাম্পাস থেকে জোর করে বাইরে নিয়ে যায়।
আইএইচটি হলের কয়েকজন আবাসিক কয়েকজন ছাত্রী জানায়, মুক্তি গত ৮ মাস ধরে হলে থাকছে। কিন্তু সে হলের কোন নিয়ম মানে না। হলে অবস্থান করে সে অনৈতিক কর্মকান্ড করে। যা অন্যান্য ছাত্রীদের আত্মসম্মানে আঘাত করছে।
ছাত্রীরা আরো বলেন, নিয়ম অনুযায়ী কোন ছাত্রী হল থেকে বের হতে হলে তাকে কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে। পাশাপাশি কোথায় যাবে সে সম্পর্কে রেজিষ্ট্রারে লিখে যেতে হবে। মুক্তি রেজিষ্ট্রারে বাড়িতে যাওয়ার কথা উল্লেখ করলেও সেখানে যায়নি বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। এজন্য ওর বিষয়ে রোববার ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষের নিকট সাধারণ ছাত্রীরা অভিযোগ দিয়েছেন। যাতে মুক্তিকে হল থেকে বের করে দেয়া হয় সে জন্য।
অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, কথিত ছাত্রলীগ নেতা আফাস ক্যাম্পাসের চিহ্নিত বখাটে। গত ২২ জুন ডেন্টাল কাউন্সিলের পরীক্ষা দিতে গিয়ে বহিস্কার হয় সে। শনিবার ভোরে ছাত্রী বাড়ি যাবার উদ্দেশ্যে বের হলে আফাস তাকে জোর করে ধরে নিয়ে যায়।
অভিযোগ প্রসঙ্গে আফাস এর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। এমনকি আইএইচটি অধ্যক্ষ ডা. মো. সাইফুল ইসলাম এর বক্তব্য জানতে তার ব্যবহৃত মুঠোফোনে কল করা হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT