বিভাগীয় ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি খসরু জেলে | | ajkerparibartan.com বিভাগীয় ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি খসরু জেলে – ajkerparibartan.com
বিভাগীয় ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি খসরু জেলে

7:02 pm , June 11, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিভাগীয় ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক সহ-সভাপতি আসাদুজ্জামান খসরুকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তবে অসুস্থতার কারনে পরে পুলিশ হাসপাতালে রাখা হয়েছে। গ্রেফতারের পর গতকাল সোমবার তাকে অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশ। আদালতের বিচারক মো. মারুফ আহমেদ তাকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপুর্বে পুলিশের করা বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে রোববার রাতে তাকে বাসা থেকে আটক করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের এসআই দেলোয়ার হোসেন। পরে তাকে থানায় সোপর্দ করা হয়। আদালত সুত্র জানায়, ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা ও গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে পুলিশের সাথে বিএনপি’র নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় কাতয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় মহানগর বিএনপি’র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক এবং ১৭নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মীর জাহিদুল কবির জাহিদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহাবুবুর রহমান পিন্টু, জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মামুন রেজা, চন্দ্রমোহন ইউপি যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক অলিউর রহমান হাওলাদার, ১০নং ওয়ার্ড ছাত্রদলের সভাপতি আলমাস সরদার, জেলা শ্রমিক দলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন বাচ্চু, জেলা ছাত্রদলের সদস্য সোহেল আকন, ৫নং ওয়ার্ড ছাত্রদলের সদস্য সোহাগ সিকদার, জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক এ্যাড. এইচএম তসলিম উদ্দিন, মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আমিনুল ইসলাম লিপন, রেজাউল কবির রনি, যুগ্ম আহ্বায়ক মশিউর রহমান মঞ্জু, মতিউর রহমান মিঠু, জাবের আব্দুল্লাহ সাদি, আরিফুর রহমান জনি, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুজ্জামান রাশেদ, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. হাফিজ আহমেদ বাবলু, জেলা ছাত্রদলের সাবেক পরিবহন সম্পাদক রবিউল আলম আউয়াল শাহিন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মানিক মেম্বার, মহানগর ছাত্রদল কর্মী আবু তাহের হাওলাদার, ৭নং ওয়ার্ড যুবদল কর্মী জিএম মনির, ২৩নং ওয়ার্ড যুবদল নেতা দুলাল হোসেন, মহনাগর ছাত্রদল কর্মী রাহাত হোসেন, জেলা শ্রমিক দলের সদস্য রিয়াজ হোসেন, জেলা যুবদল কর্মী মো. রুহুল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. জাহিদ হোসেন ও আবুল কালাম আজাদকে নামধারী এবং অজ্ঞাত আরো ৮০ জনকে আসামি করা হয়। ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়েরকৃত মামলায় যানবাহনে ভাংচুর, জনসাধারনের মধ্যে ভীতি ও সন্ত্রাসের সৃষ্টি, পুলিশের উপর হামলার চেষ্টা ও সরকারি কাজে বাঁধা প্রদানের অভিযোগ আনা হয়। ওই মামলায় আসাদুজ্জামান খসরুকে সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে আটক করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
: SYSTEM DEVELOPMENT :
SPIDYSOFT IT GROUP