সিটি'র ভোটে সেনা বাহিনীর প্রয়োজন নেই-সিইসি নূরুল হুদা | | ajkerparibartan.com সিটি’র ভোটে সেনা বাহিনীর প্রয়োজন নেই-সিইসি নূরুল হুদা – ajkerparibartan.com
সিটি’র ভোটে সেনা বাহিনীর প্রয়োজন নেই-সিইসি নূরুল হুদা

6:23 pm , June 6, 2018

মর্তুজা জুয়েল ॥ সিটির ভোটে সেনা বাহিনীর প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা। সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করা হবে তা আলোচনার ভিত্তিতে বলে জানিয়েছেন তিনি। গতকাল বুধবার নগরীর সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে এক কর্মশালার উদ্বোধনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানিয়েছেন সিইসি কেএম নূরুল হুদা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, বরিশালসহ তিন সিটির ভোটে সেনাবাহিনী মোতায়নের প্রয়োজন নেই। আগামী সংসদ’র ভোটে সেনা মোতায়েন হবে, সেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে “নির্বাচন কমিশনের সাথে আলোচনার পর”। বরিশাল ও ফরিদপুর অঞ্চলের নির্বাচন কর্মকর্তাদের ইলেক্ট্রনিক ভোটিং যন্ত্রের (ইভিএম) উপর প্রশিক্ষন কর্মসূচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে সিইসি আরো বলেন, আগামী সংসদ’র ভোটে আসবে বিএনপি। সংসদ’র ভোট প্রতিযোগিতামুলক করতে সকল রাজনৈতিক দলকে অংশ নেয়ার আহবান জানিয়েছেন তিনি। কোন দল সংসদ’র ভোটে না এলে তাদের আনতে নির্বাচন কমিশন কোন উদ্যোগ নেবে না বলে জানিয়েছেন সিইসি নুরুল হুদা।

বরিশাল সিটির ভোট অবাধ, সুষ্ঠু এবং সুন্দর করার সক্ষমতা বরিশাল প্রশাসনের রয়েছে জানিয়ে সিইসি বলেন, আগামী ৩০ জুনের ভোটে দুইটি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন করা হবে। ইভিএম’র কার্যকারিতা সম্পর্কে বলেন, সকল কেন্দ্রে এ পদ্ধতির মাধ্যমে ভোট নেয়া হলে অনিয়ম করার কোন সুযোগ থাকবে না। তাই আগামীতে ইউপি’র অন্যান্য ছোট ছোট ভোটে ইভিএম’র মাধ্যমে ভোট নেয়া হবে।

সিইসি বলেন, ২০০৮ সাল থেকে দেশে ইভিএম পদ্ধতি প্রয়োগের সুযোগ তৈরী হলেও বিভিন্ন জটিলতায় তা চালু করা যায়নি। বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশের সাথে ইভিএম পদ্ধতি সামঞ্জস্যপূর্ন। এ পদ্ধতির ফলে ৩ দিন পূর্ব থেকে ভোট কেন্দ্র পাহাড়া দেয়া আর কাগজের ব্যালট ছাপানো অবসান হবে।

অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার মো. শহীদুজ্জামান, নির্বাচন প্রশিক্ষন ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক মোস্তফা ফারুক, মহানগর পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার মাহফুজুর রহমান, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান প্রশিক্ষন কর্মসূচীতে বক্তৃতা করেন । এছাড়া ইভিএম এর কার্যপদ্ধতি সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম।

ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন সম্পর্কে বক্তারা জানান, ভোট গ্রহন শেষে কেন্দ্র থেকে ২০/২৫ মিনিটের মধ্যে ফলাফল প্রিন্ট আকারে প্রকাশ করা সম্ভব হবে। এতে করে মারামারিসহ সকল ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। ভোট গ্রহনের একঘন্টা পূর্বে মেশিনটি প্রিজাইডং কর্মকর্তা নির্ধিারিত পিন নম্বর এবং পাসওয়ার্ডের মাধমে উন্মুক্ত করবেন, ফলে ভোটের আগে বাক্স ভরে রাখার যে অভিযোগ তা বন্ধ হয়ে যাবে। দেশের সকল ধরনের কার্যক্রম পদ্ধতি পরিবর্তিত হয়ে উন্নততর হচ্ছে। সেক্ষেত্রে মানুষের ভোটাধিকার প্রয়োগ ব্যবস্থায় অনিয়ম “ইভিএম” নিরসন করবে। এ পদ্ধতিতে ভোট প্রয়োগ করা হলে অর্থ, শ্রম এবং সময় সাশ্রয় হবে। এতে করে ব্যালট পেপারসহ আনুষঙ্গিক জন্য কোটি কোটি টাকা ব্যয় হবে না। বস্তা নিয়ে টানাটানি’র অবসান হবে।

বক্তারা আরো জানান, ইভিএম মেশিন ভোটারের বায়োমেট্রিক ছাপা পূর্বেই দেয়া থাকবে। ফলে ভোটারের আঙ্গুল ইভিএমে স্পর্শ করবে তখন তার তথ্য স্ক্রিনে ভেসে উঠবে। সে প্রকৃত ভোটার হলে কেবল তার ভোট প্রয়োগ করা যাবে। বায়োমেট্রিক না মিললে তার ভোট প্রয়োগ করার কোন সুযোগ নেই। এছাড়া কোন ভোটার একবার ভোট প্রয়োগ করার পর পূনরায় বার ভোট প্রয়োগ করার চেষ্টা করলে ইভিএম মেশিন তাৎক্ষনিক জানিয়ে দিবে তার ভোট পূর্বে কখন প্রয়োগ করা হয়ে গেছে। দেশের ভোট গ্রহনের প্রচলিত পদ্ধতিতে যে সকল সমস্যা হতো তার আধুনিক সমাধান ইভিএমের মাধ্যমে নিশ্চিত হবে বলে জানান বক্তারা।

কর্মশালায় বরিশাল ও ফরিদপুর অঞ্চলের ৬০ জন নির্বাচন কর্মকর্তা অংশগ্রহন করেন। পর্যায়ক্রমে প্রতিটি জেলা-উপজেলায় এ প্রশিক্ষন কর্মসূচী আয়োজন করা হবে। প্রাথমিক অবস্থায় সারাদেশের ১০০ জন কর্মকর্তাকে বিশেষ প্রশিক্ষন দেয়া হবে। সভা শেষে ইভিএম মেশিনে ভোট প্রয়োগের পদ্ধতি প্রশিক্ষনার্থীদের দেখানো হয়।

বরিশাল জেলা প্রশাসক মোঃ হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় জেলার পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম, বিসিসি ’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ওয়াহেদুজ্জামান, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আবুল কালাম আযাদ, এনডিসি আহসান মাহমুদ রাসেল, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র কে এম শহীদুল্লাহসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সরকারী উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
: SYSTEM DEVELOPMENT :
SPIDYSOFT IT GROUP