বাহারী ইফতারিতে এবারও সেরা নাজেম | | ajkerparibartan.com বাহারী ইফতারিতে এবারও সেরা নাজেম – ajkerparibartan.com
বাহারী ইফতারিতে এবারও সেরা নাজেম

2:51 pm , May 6, 2019

প্রতিবেদক ॥ কাল থেকে শুরু হচ্ছে রমজান। রমজানকে কেন্দ্র করে নগরীতে বাহারী ইফতারির বেচাবিক্রির প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে। সকল শ্রেনী পেশার নাগরিকদের সাধ্য অনুযায়ী মুখরোচক ও বাহারী স্বাদের ইফতারী তৈরীতে প্রস্তুতি নিয়েছে শতাধিক ইফতার প্রস্তুত ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান। এরমধ্যে বৃহৎ ও ব্যতিক্রম ইফতারীর অয়োজন করেছে নগরীর শীর্ষ ইফতার প্রস্তুত ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান নাজেম’স সহ আরো ৪/৫টি প্রতিষ্ঠান। এছাড়াও উন্নত ও সুস্বাদু ইফতার তৈরী ও সরবরাহ করবে আরো অন্তত ২০/২৫ টি প্রতিষ্ঠান।
খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, প্রতিবারের মত এবারেও ইফতারীতে সবচেয়ে বৃহৎ আয়োজন করেছে নগরীর স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান নাজেম’স। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ফরিদুর রহমান রেজা জানান, সকলের নিকট প্রিয় ও স্বাস্থ্য সম্মত প্রায় ২৫ ধরনের ইফতারী সরবরাহ করা হবে। সকল শ্রেনী পেশার রোজাদারদের কাছে  ইফতারী সরবরাহ করা সম্ভব হয়, এজন্য প্রতিটি আইটেমই সর্বনিম্ম মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে। এছাড়া যার যার প্রয়োজন অনুযায়ী যাতে ইফতারী ক্রয় করতে পারে এজন্য কোন নির্দিষ্ট পরিমান নির্ধারন করা হয়নি। প্রতিটি আইটেমই বিভিন্ন পরিমান করে প্যাকেটজাত করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এরমধ্যে নাজেম’স স্পেশাল ফিরনী ২৫ টাকা, ১২০টাকা, ১৪০ টাকায় পাওয়া যাবে। প্রয়োজন অনুযায়ী বিখ্যাত শাহী জর্দ্দা ক্রয় করতে পারবেন রোজাদাররা। প্রতি কেজি জর্দ্দা ২৫০ টাকা, মোরগ পোলাউ ১৭০ ও ২৬০ টাকা, কাচ্চি বিরিয়ানী ১৭০, ২৬০ ও ৩৪০ টাকা, তেহারী ১২০ ও ২৪০ টাকা, চিকেন ফ্রাই ৭০ টাকা, চিকেন কাবাব ১০ টাকা, চিকেন পুলি ১০ টাকা। এছাড়াও রয়েছে হালিম, খাসীর রান, গরুর কালো ভূনা ও বিভিন্ন ধরনের চপ। ফরিদুর রহমান রেজা আরো জানান, দির্ঘদিন ধরে আমরা ইফতারীর প্রতিটি আইটেমগুলোতে গুনগত মান বজায় রেখেছি। ফলে ইফতারীর ২০/৩০ মিনিট পূর্বেই আমাদের অধিকাংশ আইটেম শেষ হয়ে যায়। দির্ঘদিন ধরে ক্রেতাদের আস্থা অর্জন বজায় বজায় রাখতে পারাটাই আমাদের সনবচেয়ে বড় প্রাপ্তি। তিনি আরো জানান, আমাদের অইটেমগুলোর  মধ্যে স্পেশাল ফিরনী ও শাহী জর্দ্দা, মোরগ পোলাউ, বিরিয়ানী ও তেহারীর চাহিদা সবচেয়ে বেশী। সাশ্রয়ী মূল্য ও স্বাদে অনন্য হওয়ায় অনেক দূর থেকেও ক্রেতারা এখানে আসছেন। স্থানীয়রা জানান, রেস্তোরার প্রতিষ্ঠাতা অলহাজ্ব নাজেম আলীর  ঐতিহ্যবাহী মোরগ-পোলাও, তেহেরী, কাচ্চি বিরিয়ানি ও হালিমের বিশেষ কদর রয়েছে ক্রেতাদের কাছে। এখানের তৈরী মাংসের মধ্যে মুরগীর মোসাল্লেম এবং খাসির রানের  সাথে ফ্রি পরাটা এবং গরুর কালো ভূনা খাবারে ভিন্ন স্বাদের মাত্রা যোগ করে বলেও জানান স্থানীয়রা।
নগরী ঘুরে দেখা গেছে কে কার তুলনায় বেশী মানসম্পন্ন আইটেমের ইফতার সামগ্রী ত্রেতাদের কাছে পৌছে দিতে পারে সে প্রতিযোগীতা চলছে। তবে সচেতন ব্যক্তিদের সাথে আলোচনা করলে তারা জানান, নগরীর ইফতারীর বাজারের মধ্যে  গুনগত মান ও নিজস্ব বৈশিষ্ট্য  ধরে রেখে স্বাস্থ্যসম্মত ইফতার সরবরাহে এগিয়ে আছে নাজেম’স রেস্তোরা। এছাড়া নগরীর সিএন্ডবি রোডের তাওয়া, হান্ডি কড়াই, হুপারস, হট প্লেট, রিভার ক্যাফে, হোটেল আকাশ, রয়েল রেস্তোরা, গার্ডেন ইন রেস্তোরায় করা হয়েছে বাহারি ইফতারির আয়োজন। এছাড়াও নগরীর প্রতিটি এলাকার মোড়ে মোড়েই ছোট আকৃতির ইফতার সরবরাহের আয়োজন করেছে বিভিন্ন ব্যক্তি ও হোটেল-রেস্তোরা মালিকরা। রেস্তোরার সামনে অস্থায়ী প্যান্ডেল তৈরী করে তারা ইফতারীর সরবরাহ করার প্রস্তুতি নিয়েছেণ। একাধিক ইফতার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের মালিকরা জানান, গরমের মধ্যে স্বাস্থ্য সম্মত ও সতেজ ইফতারী সরবরাহ করার চেষ্ট করা হবে। এরমধ্যে নগরীর সদর রোডের হান্ডি কড়াইতে শাহী প্যাচ পরাটা ২০ টাকা , লাচ্ছী আধা লিটার ১০০ টাকা, পেস্তা শরবত ১০০ টাকা, তান্দুরী চিকেন ১০০ টাকা, চিকেন ছাচলিক ৮০ টাকায় বিক্রি করা হবে।  এছাড়া ৯ ধরনে সেট মেন্যু ৩৭৫ টাকা এবং অপর একটি ১৪ ধরনের সেট মেন্যু ২৭৫ টাকায় পাওয়া যাবে।
পুলিশ লাইন রোডের হট প্লেটে রেস্তোরায় থাকবে কাবাবের বিভিন্ন আইটেমের ইফতার সামগ্রী। এর মধ্যে গ্রীল চিকেন, চিকেন চাপ, জালি কাবাব অন্যতম। প্রতিষ্ঠানটির মালিক কামরুল আহসান রুমী জানান, সার্বক্ষনিক গরম ও সতেজ খাবার এখান থেকে সরবরাহ করা হবে। ইফতার সামগ্রীর পাশাপাশি ৫/৬ ধরনে সেট মেন্যু এখান থেকে সরবরাহ করা হবে ।  এছাড়া নগরীর পোর্ট রোড, বাংলা বাজার, বিবির পুকুর পাড়, সকাল সন্ধ্যা সুইটস সহ বিভিন্ন এলাকায় তৈরী হয়েছে রকমারী ইফতার সামগ্রীর বাজার। ছোলাবুট, বিভিন্ন ধরনের ডালের বরা , বেসন মিশ্রিত চপ, বোরহানি, জিলাপি ঝাল ও মিষ্টি জাতীয় খাবার স্থান পাবে এ সকল দোকানে। বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দারা ইফতারী বাজার সম্পর্কে বলেন ,গরমে পানীয়, জুস, ফল, অতিরিক্ত তৈল বিহীন এবং তরল খাবারের চাহিদা বেশী। অতিরিক্ত ব্যবসা না করে রোজাদারদের নিকট সাশ্রয়ী মূল্যে ইফতার সরবরাহের দাবী জানান তারা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT