দক্ষিনাঞ্চলে পাবলিক পরিক্ষায় ফলাফল ক্রমবনতিশীল | | ajkerparibartan.com দক্ষিনাঞ্চলে পাবলিক পরিক্ষায় ফলাফল ক্রমবনতিশীল – ajkerparibartan.com
দক্ষিনাঞ্চলে পাবলিক পরিক্ষায় ফলাফল ক্রমবনতিশীল

6:36 pm , May 7, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ এবারের মাধ্যমিক পরিক্ষার ফলাফল দক্ষিনাঞ্চলের সাধারন শিক্ষা ব্যবস্থার বাস্তব অবস্থাকে আরো একবার প্রকাশ্যে নিয়ে এসছে বলে মনে করছেন সাধারন অভিভাবক থেকে ওয়াকিবাহল মহল। গত রবিবার দেশের সবগুলো শিক্ষা বোর্ডের সাথে বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি’র ফলাফল নিয়ে সন্তুষ্ট হতে পারেননি অনেক শিক্ষাবীদগনও। বিগত ৯ বছরের মধ্যে এবারের মাধ্যমিকের ফরাফল খারাপ এবং গত ৫ বছর ধরে তা ক্রমশ অবনতিশীল।
মূলত কোচিং নির্ভর শিক্ষা ব্যবস্থার সাথে শ্রেণী কক্ষে ছাত্র ও শিক্ষক মন্ডলীর লেখা পড়ার প্রতি উদাসীনতা আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থার অবনতির অন্যতম করন বলে মনে করছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধীক শিক্ষাবীদ। এর সাথে অনেক ছাত্রের জীবনধারায় মোবাইল কালচার ও আড্ডাবাজী মূখ্য বিষয়ে পরিনত হওয়ায় তাদের জন্য পড়াশোনার সময়ও সংকুচিত হচ্ছে। অবনতি ঘটছে নৈতিকতারও।
গত পাঁচ বছরে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের মাধ্যমিকের ফলাফল বিশ্লেষনে যথেষ্ট হতাশাব্যঞ্জক চিত্রই উঠে আসছে। এবারের মাধ্যমিকে বরিশাল বোর্ডে পাশের হার শতকরা ৭৭.১১% হলেও গতবছর তা ছিল ৭৭.২৪ ভাগ। ২০১৬ সালে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে পাশের হার ছিল ৭৯.৪১%, জিপিএÑ৫ পেয়ে উত্তীর্নের সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ১১৩। ২০১৫ সালে পাশের হার ছিল ৮৪.৩৭%, জিপিএ-৫ নিয়ে পাশ করে ৩,১৭১ ছাত্রÑছাত্রী। এর আগের বছর-২০১৪ সালে পাশের হার ছিল ৯০.৬৬%, আর জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রÑছাত্রীর সংখ্যা ছিল ৪,৭৬২। ২০১৩ সালে মাধ্যমিক পরিক্ষায় বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে পাশের হার ছিল ৮৮.৬৩%, জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রÑছাত্রীর সংখ্যা ছিল ৩,৫১৪। ২০১২ সালে পাশের হার ছিল ৮৬.৬৭%। আর জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয় ২,৭৩০ ছাত্রÑছাত্রী। এবারো বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোন ছাত্রÑছাত্রীই পাশ করেনি। যে সংখ্যা গত বছর ছিল দুই। অপরদিকে এবারের মাধ্যমিক পরিক্ষায় বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে শতভাগ পাশ করেছে ৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রÑছাত্রীরা। গতবছর এ ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৮৭টি ।
এমনকি বিভাগের ৬টি জেলার মধ্যে এবার বরিশাল বিভাগীয় সদরের অবস্থান ৪র্থ। গত বছর ৮০.১৪% পাশ করে দ্বিতীয়স্থানে থাকা বরিশাল এবার প্রায় চারভাগ পিছিয়ে ৭৬.৯৫% নিয়ে ৪র্থ স্থানে নেমেছে। প্রথম স্থানে উঠে এসেছে গত বছরের ৬ষ্ঠতে থাকা ভোলা জেলা। জেলাটির ছাত্র-ছাত্রীরা এবার ৮৩.০২% পাশ করে বিভাগের ছয় জেলার শীর্ষে উঠে এসেছে। গত বছর জেলাটিতে পাশের হার ছিল মাত্র ৭০.৫৮%। আর গত বছর বরিশাল বোর্ডের ৬টি জেলার মধ্যে পাশের হারে শীর্ষে থাকা ঝালকাঠী জেলার অবস্থান এবার সর্বনি¤েœ। পাশের হার মাত্র ৬২.২৫% । অথচ গত বছর ৮২.৭৮% পাশ করে এ জেলার অবস্থান ছিল ছয় জেলার শীর্ষে।
গত বছর তৃতীয়স্থানে থাকা পিরোজপুরে পাশের হার প্রায় ২ ভাগ বেড়ে একই অবস্থান ধরে রেখেছে। জেলাটিতে এ বছর ৮০.৭২% পাশ করেছে। গতবছর পাশের হার ছিল ৭৮.৫৯%। অপরদিকে পাশের হার ৭৫.৯৪% থেকে ৭৪.৬২’এ হ্রাস পেয়ে পটুয়াখালী জেলার অবস্থান ৪র্থ থেকে পঞ্চমে নেমেছে। গত বছর পঞ্চম অবস্থানে থাকা বরগুনা জেলায় পাশের হার ৭২.২১% থেকে প্রায় ৯ ভাগ বেড়ে ৮১.৭০% স্থির হয়েছে। ফলে অবস্থানও ৫ম থেকে দ্বিতীয়তে উন্নীত হয়েছে।
বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের এবারের মাধ্যমিক পরিক্ষার ফলাফলে জিপিএ ৪<৫ গ্রেড নিয়ে পাশের হার ছিল ১৬.৪৪%। যা গতকছর ছিল ২৪.৫০%। এবার জিপিএ ৩.৫<৪ গ্রেডে পাশের হার ১৬.৪৩। গতবছর ছিল ২১.১৭%। এবার জিপিএ ৩<৩.৫ নিয়ে পাশের হার ২০.৩৬। যা গতবছর ছিল ১৮.৩৫%। জিপিএ ২<৩ গ্রেডে পাশ করেছে ২০.৮০% ছাত্রÑছাত্রী। এই গ্রেডে গত বছর পাশের হার ছিল ১০.৪৯%। আর ১<২গ্রেড প্রাপ্ত ছাত্রÑছাত্রীর সংখ্যা এবছর ০.৩৫%। যা গত বছরের মাধ্যমিকে ছিল ০.২৯%। শিক্ষা বোর্ডের এ পরিসংখ্যান অনুযায়ী এবার বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের এএসসির ফলাফল খারাপ হবার সাথে খারাপ ফলে পাশের হারও যথেষ্ট বেড়েছে।
দক্ষিনাঞ্চলে এবারের মাধ্যমিকের ফলাফলেও পড়াশোনা করেই ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা ভাল করেছে। শিক্ষাবীদগন এটা অত্যন্ত স্বাভাবিক ঘটনা বলেই মনে করছেন। তাদের মতে এখন দক্ষিনাঞ্চলের বেশীরভাগ ছেলেরা আড্ডাবাজীতে ব্যস্ত। আর তুলনামূলকভাবে মেয়েরা একটু বেশীই পড়াশোনা করছে। এবার বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে ছেলেদের পাশের হার ৭৫.২৩ হলেও মেয়েরা পাশ করেছে ৭৯.০২%। আর বিজ্ঞান বিভাগে পাশের হার গড় পাশের হারের চেয়ে ১০%-এরও বেশী, ৮৯.৭০%। যার মধ্যে মেয়েদের পাশের হার ৯১%, আর ছেলেদের ৮৮.৫৯%। তবে এবার জিপিএ-৫ নিয়ে উত্তীর্ণের সংখ্যা গতবছরের তুলনায় ৫০শতাংশ বাড়লেও সে সংখ্যা মাত্র ৩হাজার ৪৬২ বা মোট পরিক্ষার্থীর ৩.৩৬%। গতবছর জিপিএ-৫ নিয়ে বরিশাল বোর্ডে পাশের সংখ্যা ছিল মাত্র ২হাজার ২৮৮ বা মোট পরিক্ষার্থীর শতকরা মাত্র ২.৪৪ভাগ।
তবে এবারো জিপিএ-৫ নিয়ে উত্তীর্ণের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ থেকেই সর্বাধীক সংখ্যক ৩,২২৮ ছাত্রÑছাত্রী উত্তীর্ণ হয়েছে। মানবিক বিভাগের ৪৭হাজার ৮৫৭ পরিক্ষার্থীর মধ্যে মাত্র ১০৬জন ও বিজনেস স্টডিজের ২৮ হাজার ৮০৯ ছাত্র-ছাত্রীর মধ্যে ১২৮জন জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।
বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে এবারের মাধ্যমিক পরিক্ষায় মানবিক বিভাগে গড় পাশের হার মাত্র ৬৮.৬৯% হলেও এ বিভাগে ৭২.২০% ছাত্রী ও ৬৩.৬৬% ছাত্র পাশ করেছে। অপরদিকে ব্যবসায় শিক্ষায় গড় পাশের হার ৭৯.১৫% হলেও ছাত্রীদের উত্তীর্ণের হার ৮২.৮৪%। এবিভাগে ছাত্রদের পাশের হার ৭৩.৬০%।
বরিশাল শিক্ষ বোর্ডে এবারের মাধ্যমিকের ফলাফল সম্প্রতিককালের সর্বনিম্ন পর্যায়ে থাকার পেছনে কিছু কিছু শিক্ষক নানা অজুহাত তুলে ধরলেও একাধীক দায়িত্বশীল মহল নাম প্রকাশ না করার শর্তে এজন্য ছাত্রÑছাত্রীদের পড়াশোনার প্রতি অমনোযোগীতা সহ শ্রেণী কক্ষে লেখাপড়ার স্বল্পতা সহ অতিমাত্রায় কোচিং নির্ভরতাকেও দায়ী করেছেন। তাদের মতে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে লেখাপড়ার মান যেমন অবনতিশীল, তেমনি কোচিং বানিজ্যের নামে শুধুমাত্র মুখস্থ বিদ্যার ওপর নির্ভরশীল অনেক ছাত্রÑছাত্রীই পরিক্ষার হলে গিয়ে সঠিক উত্তর লিখতে পারছে না। পাশাপাশি সাম্প্রতিককালে দক্ষিনাঞ্চলের প্রায় সর্বত্রই ছাত্রÑছাত্রীদের মোবাইল ফোন আর ইন্টারনেট নিয়ে অধিক সময় ব্যায় করায় লেখাপড়া তাদের কাছে এখন আর মূখ্য বিষয় নয়। অনেক স্কুল ছাত্রই বেশী রাত পর্যন্তই রাস্তায় আড্ডায় ব্যস্ত থাকছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। ফলে মাধ্যমিক সহ উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের লেখাপড়ার মান ক্রমশ অবনতিশীল বলেও অভিযোগ রয়েছে।
তবে এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরনে কালক্ষেপনের কোন সুযোগ নেই বলেও মনে করছেন একাধীক শিক্ষাবীদ সহ ওয়াকিবাহল মহল। এজন্য রাজনৈতিক মহলের সচতনা সহ প্রশাসনিক পদক্ষেপেরও কোন বিকল্প নেই বলে মনে করছেন শিক্ষাবীদগন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT