মেয়র সাদিকের কাছে বিধবার আবেদন | | ajkerparibartan.com মেয়র সাদিকের কাছে বিধবার আবেদন – ajkerparibartan.com
মেয়র সাদিকের কাছে বিধবার আবেদন

3:41 pm , March 19, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর জিয়া সড়ক এলাকায় এক বিধবা নারীর জমি দখল করে বসত ঘরের সামনেই টয়লেট ও গোয়াল ঘর নির্মান করার অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে শালিস মীমাংসা হলেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না ভুক্তভোগী ওই নারী। জমি উদ্ধারের জন্য তিনি সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
ভুক্তভোগী তাছলিমা বেগম নগরীর ২২নং ওয়ার্ড জিয়া সড়কের লোহার পোল এলাকার বাসীন্দা। তার স্বামী মারা গেছেন পনের বছর পূর্বে। সংসারে তার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছেন। তার পাশেই বাস করছেন এক সময়ের কুখ্যাত সন্ত্রাসী র‌্যাবের ক্রস ফায়ারে নিহত রত্তন মৃধার সহযোগী মোঃ হারুন হাওলাদার। হারুন ওই এলাকার মৃত রহমান হাওলাদারের ছেলে। তাছলিমা বেগমের স্বামী জাকির হোসেন  মারা যাওয়ার পরে হারুন বিভিন্ন সময় তাদের জমি দখলের চেষ্টা চালায়। সম্প্রতি তাছলিমা বেগমের বসত ঘরের সামনে থাকা ১ দশমিক ৬৫ শতাংশ জমি দখল করে হারুন। দখলকৃত জমির সামনে একটি টয়লেট ও গোয়াল ঘর নির্মান করে। এতে করে ওই এলাকায় বসবাস করা দায় হয়ে পড়েছে বিধবা তাছলিমা বেগমের। টয়লেট ও গোয়াল ঘর অপসারণের জন্য তাছলিমা বেগম সম্প্রতি বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে আবেদন করেছেন।
তাছলিমা বেগম অভিযোগ করেন, আমার সংসারে কোন পুরুষ লোক না থাকায় আামার জমির ওপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে হারুনের। তিনি সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। আমার জমি দখল করে সেখানে এমনভাবে টয়লেট ও গোয়াল ঘর করেছেন যে আমাদের চলাচল দায় হয়ে পড়েছে। দুর্গন্ধে বাসায় থাকা দায় হয়ে পড়েছে। এ নিয়ে তাদেরকে বহুবার বলা হয়েছে। কিন্তু তারা কারো কথাই কর্নপাত করছেন না। উল্টো আমাদেরকে হুমকী দিচ্ছে। দখলকৃত জমি ছেড়ে দিতে বললে তারা মেরে ফেলার হুমকী দিচ্ছে। জমির ট্যাক্স, খাজনা সবই আমি দেই। অথচ ভোগ করছে হারুন। গত ১৬ মার্চ আমাকে এসে হারুন হুমকী দেয় এই বলে ‘যদি আমি জমি নিয়ে আদালত কিংবা থানায় অভিযোগ দেই তাহলে মেরে ফেলবে’। শুধু তাই নয় আমার মেয়েকেও বিভিন্ন সময় অশ্লীল মন্তব্য করে হারুন। এ ঘটনায় আমি ১৮ মার্চ কোতয়ালী থানায় সাধারন ডায়েরী করেছি। তার যন্ত্রনায় আমরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছি। বিধবা নারী হয়ে আমি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। তিনিই পারেন আমার দখলকৃত জমি উদ্ধারে সহযোগীতা করতে। এছাড়া আমার যাওয়ার কোন জায়গা নেই। আমি এই সন্ত্রাসী ও ভূমিদস্যুর কবল থেকে বাঁচতে চাই।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT