চরফ্যাসনের পোষাক কর্মীকে গণধর্ষণ ॥ গ্রেফতার-৫ | | ajkerparibartan.com চরফ্যাসনের পোষাক কর্মীকে গণধর্ষণ ॥ গ্রেফতার-৫ – ajkerparibartan.com
চরফ্যাসনের পোষাক কর্মীকে গণধর্ষণ ॥ গ্রেফতার-৫

1:00 am , February 10, 2020

শহিদুল ইসলাম জামাল, চরফ্যাসন ॥ চরফ্যাসনের কুকরী-মুকরীর ম্যানগ্রোভ বাগানে এবং বুড়াগৌরাঙ্গ নদীর মোহনায় মাছধরা ট্রলারে আটক রেখে পোষাককর্মী যুবতীকে রাতভর গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। নদীতে টহলরত কোস্টগার্ডের দক্ষিণ আইচা কন্টিনজেন্ট সদস্যরা গতকাল রোববার ভোর ৪টায় বুড়াগৌরঙ্গ নদীর মোহনা থেকে ধর্ষিতাকে উদ্ধার, ট্রলার আটক এবং ৫ ধর্ষককে আটক করে দক্ষিণ আইচা থানায় সোপর্দ করেছেন। শনিবার সন্ধ্যা থেকে রোববার ভোর ৪টা পর্যন্ত দক্ষিণ আইচা থানার কুকরী-মুকরী ইউনিয়নের ম্যানগ্রোভ বাগান এবং বুড়াগৌরাঙ্গ নদীর মোহনায় ভাসমান মাছধরা ট্রলারে এই গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। দক্ষিণ আইচা থানার ওসি মো. হারুন-অর-রশিদ জানান, ভিক্টিমকে ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে এবং ৫ ধর্ষককে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
পুলিশ জানায়, ধর্ষিতা ২০/২২ বছরের যুবতী। তার গ্রামের বাড়ি চরফ্যাসন থানার আসলামপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে। পেশায় পোষাককর্মী ভিক্টিম ঢাকার গাবতলীর একটি পোষাক কারখানায় কর্মরত। দক্ষিণ আইচা থানার চর মানিকা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের হাকিম আলী দালালের ছেলে সোহেল রানার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ থেকে ভিক্টিমের প্রেম-প্রণয় সম্পর্ক গড়ে উঠে। অসুস্থ মায়ের চিকিৎসার জন্য ঢাকার কর্মস্থল থেকে ছুটি নিয়ে ভিক্টিম যুবতী গ্রামের বাড়িতে আসেন। এখানে মায়ের চিকিৎসার জন্য প্রেমিক সোহেলের কাছে সে (ভিক্টিম) ৫ হাজার টাকা ধার চান। টাকা নেয়ার জন্য সোহেল ভিক্টিমকে দক্ষিণ আইচা যেতে বলেন। প্রেমিকের কথামতো গত শনিবার বিকেল ৫টায় ভিক্টিম দক্ষিণ আইচা যান। দক্ষিণ আইচায় চর মানিকা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইসমাইল ফকিরের ছেলে রিপন এবং ৩নং ওয়ার্ডের মোকাম্মেল সিকদারের ছেলে ওয়াছেল সিকদার প্রেমিক সোহেলের সাথে যোগদেয়। এই তিনজন একটি স্পীডবোট ভাড়া নিয়ে যুবতীকে দক্ষিণ আইচার কচ্চপিয়াঘাট থেকে কুকরী-মুকরীর ম্যানগ্রোভ বগানের গহীন অরণ্যে নিয়ে যায়। সন্ধ্যার পর গহীন বাগানে তিনবন্ধু মিলে যুবতীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। রাত ১০টার পর চর মানিকা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের খলিল সর্দারের ছেলে ইউসুফ সর্দার এবং ৪ নং ওয়ার্ডের কাশেম হাওলাদারের ছেলে মোর্শেদ একটি ট্রলার নিয়ে নারিকেল বাগান যায়। এবার বাগান থেকে যুবতীকে ট্রলারে তুলে বুড়াগৌরাঙ্গনদীর মোহনায় নেয়া হয়। নদীর মোহনায় ট্রলার নোঙ্গরকরে সারারাত ৫ জনে যুবতীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।কোস্টগার্ডের দক্ষিণ আইচা কন্টিনজেন্ট কমান্ডার আলমগীর হোসেন জানান, ভোর ৪টার দিকে নদীতে টহলরত কোস্টগার্ড সদস্যরা ‘মায়ের দোয়া’ নামে স্টীলবর্ডির একটি নোঙ্গর করা ট্রলার দেখে সন্দেহ করে। কোস্টগার্ড সদস্যরা ট্রলারটির দিকে এগিয়ে যান।কোস্টগার্ডের টহলদল কাছাকাছি পৌছলে ভিক্টিম যুবতী বাঁচানোর জন্য আর্তনাদ করে উঠেন এবং বলেন-‘স্যার,আমাকে বাঁচান। ওরা আমাকে মেরে নদীতে ফেলে দেবে’। কোস্টগার্ড সদস্যরা তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে যুবতীকে উদ্ধার, ট্রলারে অবস্থানরত ৫ ধর্ষককে আটক এবং মায়ের দোয়া নামের ট্রলারটি জব্দ করে। সকালে ভিক্টিম ও ধর্ষকদের দক্ষিণ আইচা থানায় সোপর্দ করা হয়। দক্ষিণ আইচা থানার ওসি মো. হারুন অর রশিদ জানান, ভিক্টিম যুবতী বাদি হয়ে ৫ ধর্ষককে আসামী করে গণধর্ষণের অপরাধে মামলা দায়ের করেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT