কলাপাড়ায় বর্ষনে ইটভাটা ক্ষতিগ্রস্থ | | ajkerparibartan.com কলাপাড়ায় বর্ষনে ইটভাটা ক্ষতিগ্রস্থ – ajkerparibartan.com
কলাপাড়ায় বর্ষনে ইটভাটা ক্ষতিগ্রস্থ

3:06 pm , January 4, 2020

কলাপাড়া প্রতিবেদক ॥ শীতকালীন ভারী বর্ষনে কলাপাড়ার ৩০টির অধিক ইটভাটার মালিকদের দেড় কোটি টাকা মূল্যের কাঁচা ইট সম্পূর্ণ নস্ট হয়েগেছে। গত শুক্রবার থেকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত ভাড়ি এবং গুড়ি গুড়ি বৃস্টিপাতের কারনে পানি জমে ইট গুলো নস্ট হয় বলে ইটভাটার শ্রমিক ও মালিকরা নিশ্চিত করেছেন। সরেজমিন উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের বাদুরতলী গ্রামের একাধিক ইটভাটায় গিয়ে দেখাগেছে, আন্ধামানিক নদের তীরের সাগর ব্রিকস এর মাঠে তৈরী করা কাঁচা ইট গুলো বৃস্টির কারনে কাঁদা মাটিতে পরিনত হয়েছে। সেখানে উপস্থিত লেবার সরদার মো. শাহিন জানায়, ইট তৈরীর মৌসুম শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দুই দফা বৃস্টিপাত হয়। এতে কমপক্ষে সাগর ব্রিকসের সাত লাখ কাঁচা ইট সম্পূর্ণ নস্ট হয়েগেছে। নস্ট হওয়া ইট পুনরায় তৈরী করত সময় এবং খরচ দুটিই বেড়েগেছে। সাগর ব্রিকস এর মালিক মো. শওকত হোসেন তপন বিশ^াস জানায়, পৌষের মাঝামাঝি সময়ের অকাল বৃস্টিতে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার ৩০টির অধিক ইটভাটার মালিকদের কয়েক কোটি কাঁচা ইট নস্ট হয়েগেছে। ইট তৈরীর প্রথম মৌসুমে প্রতিটি ইটভাটায় শত শত শ্রমিক দিন-রাত একটান শ্রমদিয়ে ইট প্রস্তুত করে। প্রস্তুত করা ইট রোদে শুকিয়ে চুল্লিতে দেয়ার আগ মূহুর্তে ভাড়ি বর্ষনে পুরোপুরি নস্ট হওয়ায় কিংকর্তব্য বিমূঢ় হয়ে পরেছে প্রতিটি ইটভাটার মালিক। ইট নস্ট হওয়ায় ইটভাটার মালিকদের কমপক্ষে দেড় কোটি টাকার ইট সম্পূর্ণ নস্ট হয়ে গেছে। ইটভাটার মালিকদের বর্তমান অবস্থা এমন হয়েছে যে, আর্থিক লোকসান কাটিয়ে ওঠার সামর্থও নাই, সামাজি অবস্থানের কারনে আর্থিক সহায়তা পাওয়ারও কোন উপায় নেই। শুধু লোকসানের ভাবনায় তিলে তিলে নিজেদের বিপর্যস্ত করাছাড়া করার কিছুই থাকছেনা ইটভারা মালিকদের।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT